২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৩ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • সকল সংবাদ
  • আগৈলঝাড়ায় সরকারী পাউবোর জায়গা বিক্রির অভিযোগ। থানায় লিখিত অভিযোগ নেয়নি পুলিশ।




আগৈলঝাড়ায় সরকারী পাউবোর জায়গা বিক্রির অভিযোগ। থানায় লিখিত অভিযোগ নেয়নি পুলিশ।

মোহাম্মদ ইমন মিয়া, বাঙ্গরা,কুমিল্লা করেসপন্ডেন্ট।

আপডেট টাইম : এপ্রিল ০৫ ২০১৮, ১৮:৫৬ | 693 বার পঠিত | প্রিন্ট / ইপেপার প্রিন্ট / ইপেপার

আগৈলঝাড়া প্রতিনিধিঃ
বরিশালের আগৈলঝাড়ায় সরকারী পানি উন্নয়ন বোর্ডের জায়গা জাল দলিল করে বিক্রি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে যতীশ চন্দ্র বালার বিরুদ্ধে। বরিশার পানি উন্নয়ন বোর্ড থেকে
মামলা করার জন্য একটি লিখিত অভিযোগ নিয়ে থানায় আসলে পুলিশ অভিযোগ গ্রহণ করেনি। এ ঘটনায় স্থানীয় লোকজনের মাঝে চরম ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।
বরিশাল পানি উন্নয়ন বোর্ডের অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, আগৈলঝাড়া উপজেলার গৈলা ইউনিয়নের পূর্ব রাহুৎপাড়া মৌজার এসএ ১০৮ খতিয়ানের ৪২৪ নং দাগের এলএ নং ১০৮, এলএ কেস নং- ৪ (ডব্লিউ)/১৯৮৩-৮৪ এর মাধ্যমে ১৩ শতাংশ জমি বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড সাতলা-বাগধা সেচ প্রকল্পের ভেরিবাঁধ নির্মাণ করার জন্য সরকার অধিগ্রহণ করে। কিন্তু রাহুৎপাড়া গ্রামের গণেশ চন্দ্র বালার ছেলে যতীশ চন্দ্র বালা সেটেলমেন্ট অফিসের অসাধু কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে সরকারী অধিগ্রহণকৃত ১৩ শতাংশ জমি থেকে নিজ নামে ৬ শতাংশ রেকর্ড করেন। পরে একই এলাকার গণেশ চন্দ্র হালদারের ছেলে দেবাশীষ হালদারের কাছে ২০১৬ সালের ৬ অক্টোবর বিক্রি করে দেয়, যার দলিল নং-২১০৪/১৬। আগৈলঝাড়া উপজেলার সাবেক নির্বাহী কর্মকর্তা গাজী তারিক সালমন এ ঘটনার তদন্ত করে সত্যতা পেয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া জন্য (স্মারক নং ৫.১০.০৬০০.০০০.৩৩.০০৩.১৭-১৬১) বরিশাল পানি উন্নয়ন বোর্ডের কাছে একটি প্রতিবেদন প্রেরন করেছিলেন। যার অনুলিপি বরিশাল জেলা প্রশাসক, আগৈলঝাড়া সহকারী কমিশনার (ভূমি), আগৈলঝাড়া সাব রেজিস্ট্রার ও গৈলা ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তাকে দেয়া হয়েছিল। সরকারী অধিগ্রহণকৃত জমি বিক্রির খবর শুনে পানি উন্নয়ন বোডের্র উপ-সহকারী  প্রকৌশলী মাহাবুবুর রহমান, মো. করিম আলী, সার্ভেয়ার মো. ফরিদ উদ্দিন গত ৩১ মার্চ সরেজমিন তদন্ত করেন। তদন্তে এসে বিক্রির সত্যতা পেয়ে উপ-সহকারী প্রকৌশলী মাহাবুবুর রহমান বাদী হয়ে যতীশ চন্দ্র বালা, দেবাশীষ হালদার ও বাবুল চন্দ্র হালদারকে বিবাদী করে ২রা এপ্রিল গৌরনদী সার্কেল অফিসের কার্য সহকারী মো.রাসেল আকনকে দিয়ে মামলা করার জন্য একটি লিখিত অভিযোগ আগৈলঝাড়া থানায় পাঠায়। ওই অভিযোগ আগৈলঝাড়া থানা পুলিশ গ্রহণ করেনি। এ ব্যাপারে থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো.রাজ্জাক মোল্লা সাংবাদিকদের জানান, আমি মামলার সাক্ষী দিতে থানার বাহিরে ছিলাম। তখন যে কর্মকর্তা দায়িত্বে ছিল এ ব্যাপারে সে ভালো বলতে পারবে।

Please follow and like us:

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৬০১৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET