২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার, ৭ই আশ্বিন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ৬ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • সকল সংবাদ
  • আশাশুনি উপজেলার বুধহাটা বাজারের সড়কগুলো ব্যবসায়ীদের দখলে




আশাশুনি উপজেলার বুধহাটা বাজারের সড়কগুলো ব্যবসায়ীদের দখলে

প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

আপডেট টাইম : জানুয়ারি ১৬ ২০১৮, ০৯:৩৩ | 683 বার পঠিত | প্রিন্ট / ইপেপার প্রিন্ট / ইপেপার

নিউজ ডেস্কঃ- আশাশুনি উপজেলার প্রাণকেন্দ্র বুধহাটা বাজারের অভ্যান্তরিন সড়কগুলো ব্যবসায়ীদের দখলে থাকায় ক্রেতা সাধারণের ভোগান্তি চরমে পৌঁছেছে। বাজারের শৃংখলা রক্ষার্থে স্থাপিত ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার কার্যকারিতা বাধাগ্রস্থ হওয়ায় লাখ লাখ টাকার প্রকল্প ভেস্তে যেতে বসেছে।
উপজেলার বৃহত্তর ও ব্যস্ততম মোকাম বুধহাটা বাজার প্রতিদিন ভোর থেকে রাত্র ১১/১২ টা পর্যন্ত চালু থাকে। হাজার হাজার দোকান পাট, মিল কারখানা ও প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে বাজারে। আশাশুনি উপজেলাসহ পার্শ্ববর্তী সাতক্ষীরা সদর, পাইকগাছা, দেবহাটা, কালিগঞ্জ ও তালা উপজেলার অনেক ইউনিয়নের মানুষ প্রতিদিন মালামাল ক্রয়-বিক্রয় ও প্রয়োজনীয় কাজে বাজারে এসে থাকেন। পাইকারী মোকাম হিসাবে বাজারের শতাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও মিল কারখানার কদর রয়েছে। বাজারের মধ্যে রয়েছে একটি প্রধান সড়কসহ অনেকগুলো অভ্যান্তরিন সড়ক। এসব সড়কে প্রতিদিনি হাজার হাজার মানুষের যাতয়াতের সাথে সাথে ভ্যান, সাইকেল, মটর সাইকেল, ইজিবাইক, ইঞ্জিনভ্যান, মাইক্রো ইত্যাদি চলাচল করে থাকে। এছাড়া মালামাল আনা নেওয়ার জন্য পিকআপ, ট্রাকসহ অন্য যানবাহনের চলাচল রয়েছে। এতটা ব্যস্ততম সড়ক হওয়ার পরও সকল সড়কগুলোতে স্থায়ী দোকানকে সম্প্রসারণ, ছোট ছোট স্টল বসানো হয়েছে। রয়েছে ফুটপাতে জামা কাপড়ের দোকান, ভাজার দোকান, মুরটি-পোলট্রি বিক্রয়সহ বিভিন্ন দোকান। কাচা বাজারের চাদনীসেট রেখে সামনের সড়ক দখলে নিয়ে চালু রয়েছে রাস্তা দখলে নিয়ে চটফড়িয়ার মত করে দোকান। আছে চাউল, পান, আখ, মাছ ও ফলফলাদির দোকান। এক কথায় বলতে গেলে বাজারের প্রায় সকল সড়কে রয়েছে দখলের হিড়িক। ফলে সড়কগুলো সংকীর্ণ হয়ে পড়ায় মানুষের ভোগান্তি চরম আকার ধারণ করেছে। কেবল সড়ক দখল নয়, অধিকাংশ দোকানিরা রোদ-বৃষ্টির হাত থেকে বাঁচার জন্য উপরে পলিথিন পেপার, চট বা অন্য কিছু দিয়ে সড়ক জুড়ে ছাউনি দিয়ে রেখেছে। এতে যানবাহন বা মালামাল বহনের কাজে ব্যব্হৃত গাড়ীগুলো ছাউনিতে আটকে যাওয়া নিয়ে প্রতিনিয়ত দ্বন্দ্ব-ফাসাদ লেগেই থাকে। সবচেয়ে বড় সমস্যা ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার ব্যবহার নিয়ে। ক্যামেরা গুলো সড়ক দখলের ফলে এবং রোডের উপর ছাউনির কারণে সড়কের ছবি গ্রহনে ব্যর্থ হচ্ছে। এতে সড়কগুলো অরক্ষিত থেকে যাচ্ছে। ইউপি চেয়ারম্যান ও বাজার কমিটির সভাপতি ইঞ্জিঃ আ ব ম মোছাদ্দেক বলেন, সড়ক ও ড্রেন নির্মান, বাজারের উন্নয়ন এবং আইন শৃংখলা রক্ষার জন্য ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা স্থাপনসহ অনেক কিছু করেছি। আরও অনেক কিছু করার দরকার। কিন্তু ব্যবসায়ীরা বা সংশ্লিষ্টরা প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করায় সেটি বাধাগ্রস্থ হচ্ছে। অবৈধ সড়ক দখল, সড়কে ছাউনি দিয়ে ক্যামেরায় ছবি নিতে বাধা সৃষ্টি ও পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা রক্ষায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি প্রতিরোধে তিনি প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেন।

Please follow and like us:

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৬০১৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET