১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার, ৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

শিরোনামঃ-

আসলে ক্রসফায়ার, না বন্দুকযুদ্ধ, না কি হত্যার শিকার ?

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : জুন ২৬ ২০১৬, ০০:৪২ | 669 বার পঠিত

মাসুদ২_resizedমাসুদ_resizedসোনাগাজী প্রতিনিধি, মো:জহিরুল হক খাঁন সজীব- ফেনী সোনাগাজীতে অপহরণের ৩ দিন পর ৱ্যাবের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। ৱ্যাবের ভাষ্য, নিহত ব্যক্তি ডাকাত সর্দার ছিলেন। তবে তার পরিবারের অভিযোগ গত বুধবার সকালে তাকে চট্রগ্রামের সিতাকুন্ড থানার কুমিরা ভায়রার বাসার সামনে থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তিরা অস্ত্রের মুখে অপহরণ করে। ৱ্যাবের তথ্য অনুযায়ী, গতকাল শনিবার দিবাগত রাত ২ঘটিকার দিকে উপজেলার চরচান্দিয়া ইউনিয়নের সোনাগাজী- ওলামাবাজার সড়কের এনাম ড্রাইভারের বাড়ীর পাশে এই বন্দুকযুদ্ধ হয়। নিহত ব্যক্তির মো. মাসুদ ওরফে গাব্বা মাসুদ পরিচিত (৩৪)। তাঁর বাড়ি চরচান্দিয়ায় (ভূঁঞা বাজার ডাক্তার নুর উল্যাহ সাহেবের বাড়ী)। পিতা বাদশা মিয়া। স্থানীয় লোকজনের ভাষ্য, নিহত মাসুদ চরচান্দিয়া ইউনিয়নের যুবদলের নেতা হিসেবে এলাকায় পরিচিত ছিলেন এবং যুবদল নেতা খুরশিদ আলম ভুঞাঁর সাথে রাজনীতির সাথে জড়িত। ৱ্যাবের দাবি কথিত বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় নিজেদের দুজন সদস্য গুরুতরভাবে আহত হয়েছেন বলেন । ঘটনাস্থল থেকে দুইটি পিস্তল, দুইটি বন্দুক ও ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করার দাবি করা হয়েছে। ৱ্যাব-৭ ফেনী ক্যাম্পের অধিনায়ক স্কোয়াড্রন লিডার সাফায়েত জামিল ফাহিমের ভাষ্য, সোনাগাজীর মধ্যম চরচান্দিয়া এলাকার সৌদিপ্রবাসী এনাম ও তাঁর ওমানপ্রবাসী ছেলে সোহেল কিছুদিন আগে দেশের বাড়িতে আসেন। গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাতে মাসুদের নেতৃত্বে একদল ডাকাত ওই বাড়িতে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে এ খবর পায় ৱ্যাব। সেখানে যায় ৱ্যাবের একটি দল।উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাতেরা ৱ্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। ৱ্যাবও পাল্টা গুলি ছোড়ে। এতে মাসুদ গুলিবিদ্ধ হয়। তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে সোনাগাজী ও পরে ফেনী সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে তাঁকে মৃত ঘোষণা করা হয়। ৱ্যাব যে বাড়ীতে ডাকাতির প্রস্তুতির কথা বলছে তাদের সাথে কথা বলে জানা যায়, আমরা ডাকাতির বিষয়ে কোন কিছু জানি না। ৱ্যাব আমাদেরকে ডেকে তুলে ডাকাতির কথা জানিয়েছে। সোনাগাজী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হুমায়ুন কবীর বলেন, মাসুদ ৱ্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন বলে শুনেছেন তিনি। তাঁর বিরুদ্ধে হত্যা, ডাকাতি, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজিসহ অন্তত ১২টি মামলা রয়েছে। এছাড়া গত ৪ জুন ইউপি নির্বাচনের সময় চরছান্দিয়ার ভুঞাঁ বাজারে ভোট কেন্দ্রে হামলার ঘটনায় দায়ের করা দুই মামলার আসামী। তিনি পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী ছিলেন। ৱ্যাব-পুলিশের দাবির বিষয়ে নিহত ব্যক্তির স্ত্রী রোকসানা আক্তার বলেন, আমার স্বামী কোন জলদস্যু বা কোন ডাকাত ছিল না। সে বিএনপি রাজনীতি করত এটা তার অপরাদ। তার প্রতিপক্ষ রাজনৈতিক দল ষড়যন্ত্র করে গত বুধবার চট্টগ্রামের সীতাকুন্ড থানার কুমিরা থেকে তাকে অপহরণ করে ৱ্যাবের সহযোগিতায় হত্যা করে।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4720299আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 10এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET