২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার, ৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৩ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

শিরোনামঃ-

করোনার নতুন ‘হটস্পট’ বরিশাল বিভাগের ৩ জেলা

আরিফিন রিয়াদ, গৌরনদী,বরিশাল করেসপন্ডেন্ট।

আপডেট টাইম : জুলাই ২৯ ২০২১, ১৫:১৭ | 649 বার পঠিত

দেশে করোনা প্রাদুর্ভাবের ১৬ মাস পর আবারও সংক্রমণ ও মৃত্যু বাড়তে শুরু করেছে বরিশাল বিভাগের কয়েকটি জেলায়। গত বছর এসব জেলায় সংক্রমণের হার নিন্মমুখী থাকলেও চলতি জুলাই মাসে আক্রান্ত ও মৃত্যুর হারে গত ১৬ মাসের রেকর্ড ভেঙেছে।

নতুন করে ‘হটস্পট’ হয়ে ওঠা বিভাগের তিনটি জেলায় করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার আশঙ্কাজনকভাবে বেড়েই চলেছে। গত এক মাসে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু দেখা দিয়েছে বিভাগের বরিশাল, বরগুনা ও ভোলা জেলায়। বৃহস্পতিবার সকালে বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

সূত্রমতে, গত ৫ জুলাই বরিশাল জেলায় শনাক্তের হার ছিল শতকরা ২৭%। ক্রমেই তা বেড়ে হয়েছে ৫৩ শতাংশ। ভোলা ও বরগুনায় গত তিন সপ্তাহ আগে থাকা ২১% বেড়ে এখন ৪৭ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। এসব জেলায় চলতি মাসের প্রথম থেকেই সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি থাকলেও বর্তমানে তা বিপজ্জনক পর্যায়ে পৌঁছেছে।

গত বছরের ১১ মার্চ থেকে চলতি জুলাই মাসের বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) পর্যন্ত ১৬ মাসে বরিশাল জেলায় মোট করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৩ হাজার ৫৩০ জন। যারমধ্যে শুধু পাঁচ হাজার ৬৫২ জন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে জুলাই মাসের চার সপ্তাহে। এ পর্যন্ত জেলায় মোট ১৫৪ জনের মৃত্যু হলেও ২৮ জন মারা গেছেন চলতি মাসে। ভোলা জেলায় এ পর্যন্ত মোট আক্রান্ত হয়েছে তিন হাজার ৫১৫ জনের মধ্যে এ মাসেই আক্রান্ত হয়েছে এক হাজার ৪৫৫ জন, মারা গেছে পাঁচজন। বরগুনায় বিগত ১৬ মাসে মোট আক্রান্ত হয়েছে দুই হাজার ৭৭৪ জন। যারমধ্যে শুধু জুলাই মাসেই আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে এক হাজার ৩৩২ জন। বরগুনায় আক্রান্ত হয়ে মোট মারা গেছেন ৬৫ জন, যারমধ্যে চলতি মাসেই মারা গেছে ৩৫ জন। অর্থাৎ বিগত ১৫ মাসে যতোজন আক্রান্ত হয়েছে ও মারা গেছে তার অর্ধেকই আক্রান্ত ও মৃত্যু হয়েছে চলতি মাসে।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক ডাঃ বাসুদেব কুমার দাস জানান, হঠাৎ করেই চলতি মাসে করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার বিভাগের কয়েকটি জেলায় উদ্বেগজনকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। তিনি আরও জানান, গ্রামের মানুষ স্বাস্থ্যবিধি মানতে চায় না, ফলে এখন গ্রামে আক্রান্ত হচ্ছে বেশি। পাশাপাশি করোনায় আক্রান্ত কিংবা উপসর্গ দেখা দেওয়ার পর তথ্যগোপন করে রাখা হয়। পরবর্তীতে আশঙ্কাজনক অবস্থায় পৌঁছেলে রোগীদের গ্রাম থেকে বিভাগীয় হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। রোগী ও স্বজনদের অসচেতনতার জন্য ক্রমেই করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর হার দুটোই বৃদ্ধি পেয়েছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

উল্লেখ্য, বরিশাল বিভাগের পটুয়াখালী জেলার দশমিনা উপজেলায় ২০২০ সালের ৯ মার্চ প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। সেই থেকে বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) সকাল পর্যন্ত বরিশাল বিভাগের ছয় জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ৩২ হাজার ৮৪ জন। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৪৫৩ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১৮ হাজার ৬৩৮ জন।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4723830আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 4এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET