২৫শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ৯ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৮ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • সকল সংবাদ
  • কুষ্টিয়ায় শিক্ষকের উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে স্কুলের সকল ছাত্র-ছাত্রী ও কর্মচারীরা=

কুষ্টিয়ায় শিক্ষকের উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে স্কুলের সকল ছাত্র-ছাত্রী ও কর্মচারীরা=

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : আগস্ট ০৯ ২০১৬, ১৯:১৩ | 660 বার পঠিত

13957657_1771703253115444_1096231613_nমো.নাজমুল হাসান নাহিদ, কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি।।। কুষ্টিয়ায় আওয়ামী লীগ নেতাদের মতামত না নিয়ে স্কুল পরিচালনা পর্ষদের আহবায়ক কমিটি জমা দেয়ায় এক প্রধান শিক্ষককে বেধড়ক পিটিয়েছে ইবি ছাত্রলীগ ও স্থানীয় যুবলীগের ক্যাডাররা। গতকাল সোমবার সকালে স্কুলের গেটে দুই দফায় হামলার এ ঘটনা ঘটে। আহত শিক্ষক শামসুল আলম কুষ্টিয়া সদর উপজেলার হাসানবাগ মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। এ সময় মারপিট ঠেকাতে আসলে একই স্কুলের সহকারি শিক্ষক হুসাইন মোহাম্মদ এরাশদকেও পেটায় তারা। মারপিটের পর প্রধান শিক্ষককে স্কুলে অবরুদ্ধ করে রেখে আপোষ করার জন্য চাপ দেন আওয়ামী লীগ নেতারা। এ ঘটনায় প্রধান শিক্ষক বাদি হয়ে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানায় ৭ জনের নাম উল্লেখ করে এজাহার জমা দিয়েছেন। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শফিকুল ইসলাম বলেন, হাসানবাগ মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শামসুল আলমকে শারীরিকভাবে হেনস্থা করা হয়েছে। হকিষ্টিক ও লাঠিসোটা দিয়ে তাকে পেটানো হয়েছে। আমি ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। ইতিমধ্যে প্রধান শিক্ষক বাদি হয়ে ৭ জনের নাম উল্লেখ করে একটি লিখিত অভিযোগ জমা দিয়েছে। অভিযোগ এখনো মামলা হিসেবে রজু করা হয়নি। ওই অভিযোগে, আনিসুর , জিলু, সাদ্দাম, মুসাসহ অন্যদের নাম আছে। প্রধান শিক্ষক শামসুল আলম অভিযোগ করে বলেন, স্কুল পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচিত কমিটির মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় নতুন নির্বাচন করার জন্য একটি আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। কয়েকদিন আগে তা অনুমোদনের জন্য উপজেলায় জমা দেন। এ নিয়ে গত রোবাবার বিকেলে শহর আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী এক নেতা মোবাইলে ফোন দিয়ে কমিটি গঠন করার সময় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতাদের মতামত নেয়া হয়েছিল কি-না আমার কাছে জানতে চান। আমি তাকে বলি মতামত নেয়া হয়নি। এ সময় তিনি আমাকে রাজাকার বলে গালিগালাজ করেন। আমি এর প্রতিবাদ করলে তিনি ফোন কেটে দেন। আজ (গতকাল) সকালে আমাকে এলাকারই কিছু ছেলে-পেলে এসে হকিষ্টিক দিয়ে মেরেছে। যারা হামলা করেছে তারা যুবলীগ ও ছাত্রলীগের সাথে জড়িত। প্রত্যক্ষদর্শিরা জানান, সোমবার সকালে প্রধান শিক্ষক শামসুল আলম স্কুল গেটের সামনে ব্রীজের ওপর আসলে সদর থানা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক জিলুর রহমান, ইবি ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক আনিসুর রহমান আনিস, সাদ্দাম হোসেন ও মুসা হকিষ্টিক হাতে নিয়ে অচমকা শিক্ষককে পেটাতে থাকে। তারা বলে, নেতার সাথে খারাপ ব্যবহার করেছিস কেন? এই বলে মারতে থাকে। তিনি দৌঁড় দিয়ে স্কুলের ভিতর প্রবেশের চেষ্টা করেন। পরে তাকে তাড়া করে স্কুলের গেটে ফের পেটায় তারা। এ সময় স্কুলের কম্পিউটার বিষয়ের শিক্ষক হুসাইন মোহাম্মদ এরশাদ হামলা ঠেকাতে আসলে তাকেও পেটানো হয়। এ ঘটনার পর বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এ নিয়ে ক্ষোভে ফেটে পড়েন এবং বিক্ষোভ করেন। এসময় তারা এ ঘটনার সুষ্ঠু তদমত্ম দাবীও করেন। স্কুলের ছাত্রীরা জানান, এলাকার কয়েকজন যুবক এসে স্যারদের মারপিট করেছে। এ সময় বাইরের অনেকে বিষয়টি দেখলেও ভয়ে কেউ এগিয়ে আসেনি। প্রধান শিক্ষক শামসুল আলম বলেন, একাত্তরে রাজাকার ও পাক আর্মিরা আমার দাদা ও নানাকে হত্যা করে। তাহলে আমি রাজাকার হলাম কিভাবে? স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের কথামত কমিটি না করায় এক শীর্ষ আওয়ামী লীগ নেতার নির্দেশে আমাকে মারা হয়েছে। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই। স্থানীয় পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এএসআই আতিক বলেন, ঘটনা শুনে সকালে স্কুলে গিয়েছিলাম। ওসিসহ স্থানীয় নেতারা প্রধান শিক্ষককে নিয়ে মিটিং করছিল। হামলাকারিদের ধরতে অভিযান চালানো হচ্ছে। হামলার বিষয়ে জানতে ইবি ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক আনিসুর রহমান আনিসের মোবাইলে রিং দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।
Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4764469আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 9এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET