৩রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার, ১৯শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৩শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • বিশেষ প্রতিবেদন
  • কেশবপুরের পাঁজিয়া ইউপির সাবেক চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ৯০টি গভীর নলকুপ স্থাপন করার নামে প্রায় ৯লাখ টাকা লোপাটের অভিযোগ

কেশবপুরের পাঁজিয়া ইউপির সাবেক চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ৯০টি গভীর নলকুপ স্থাপন করার নামে প্রায় ৯লাখ টাকা লোপাটের অভিযোগ

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : আগস্ট ১১ ২০১৬, ১৭:৩০ | 643 বার পঠিত

কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি-
কেশবপুর উপজেলার পাঁজিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মকবুল হোসেন মুকুলের বিরুদ্ধে ৯০টি গভীর নলকুপ স্থাপনের নামে ৯ লাখ টাকা আতœসাতের অভিযোগ উঠেছে।
কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট লিখিত অভিযোগে জানাগেছে, উপজেলার হদ গ্রামের সাজ্জাত আলী সরদারের কন্য রেশমা খাতুন ২০১৩ সালের ১ অক্টোবর তারিখে পাঁজিয়া ইউনিয়ন পরিষদের অর্ন্তগত হাইসাওয়া এসডিসি প্রকল্পে চাকুরিতে যোগদান করেন। যে প্রকল্পের কাজ হল গ্রাগকদের নিকট থেকে সামাজিক স্বচ্ছলতার উপর ভিত্তি করে ৬৯৩০ টাকা থেকে ১৩৮৭০ টাকা পর্যন্ত নিয়ে টেন্ডারের ভিত্তিতে গভীর নলকুপ স্থাপন করা। প্রথমে ১০০ গভীর নলকুপ সুশানের ভিত্তিতে স্থাপন করা হলেও পরবর্তীতে তৎকালীন চেয়ারম্যান মকবুল হোসেন মুকুল বল পূর্বক ও নিজস্ব ক্ষমতাবলে ৯০ জন গ্রহকের নিকট থেকে প্রায় ৯ লাখ টাকা তাঁর ব্যাক্তিগত সমস্য মেটানোর জন্য অপকৌশল প্রয়োগ করে কুক্ষিগত করে ফেলে। গত নির্বাচনে তিনি নির্বাচিত না হতে পেরে উক্ত টাকার দায়ভার হাইসাওয়া কর্মী রেশমা খাতুনের উপর চাঁপানোর চেষ্টা করছেন। অপরদিকে তিনি হাইসাওয়া কর্মী রেশমা খাতুনের ১১ মাসের বেতনও আটকিয়ে রেখেছেন।
এদিকে গ্রহকদের টাকা সুষ্ঠুভাবে আদায় করার জন্য গত ৮ আগস্ট ইউনিয়ন পরিষদে এক জরুরী সভা আহ্বান করা হয়। উক্ত সভায় ইউপি সদস্য ও গ্রাহকরা হাজির হলেও চেয়ারম্যান হাজির হয়নি। যার ফলে নিরুপায় হয়ে হাইসাওয়া কর্মী রেশমা খাতুন গ্রহকদের টাকা সুষ্ঠুভাবে আদায় করার জন্য সাবেক চেয়ারম্যান মকবুল হোসেন মুকুলের বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট লিখিত অভিযোগ করেছেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার শরীফ রায়হান কবির সাবেক চেয়ারম্যান মকবুল হোসেন মুকুলের বিরুদ্ধে অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এব্যাপারে পাঁজিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মকবুল হোসেন মুকুল জানান, ৫০টি গভীর নলকুপের টাকা ব্যাংকে জমা দেওয়া হয়েছে। নির্বচনী কাজে ব্যাস্ত থাককালীন রেশমা খাতুন বেশ কিছু গ্রহকদের নলকুপ স্থাপনের নামে টাকা নিজেই আতœসাত করেছে। যে টাকা ফেরত না দিতে পেরে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা দোষারোপ করছে।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4664026আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 4এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET