১৩ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার, ৩০শে চৈত্র, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ৩রা শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

শিরোনামঃ-




কেশবপুরে দুই ইটভাটা মালিকের জরিমানাসহ কারাদণ্ড

প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

আপডেট টাইম : জানুয়ারি ১৫ ২০১৮, ২১:০০ | 701 বার পঠিত | প্রিন্ট / ইপেপার প্রিন্ট / ইপেপার

কেশবপুর(যশোর) থেকেঃ  কেশবপুরে প্রশাসনের নির্দেশ অমান্য করে ইট পোড়ানোর অভিযোগে রোমানব্রিকসের মালিক সিদ্দিকুর রহমান ও জামান ব্রিকসের সত্ত্বাধিকারী মমতাজ বেগমকে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ৬ মাস করে জেল ও৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। সোমবার সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মিজানূর রহমান ওই দুই ভাটা মালিককেজেল ও জরিমানা করেন।

সরকারের নীতিমালা উপেক্ষা করে কেশবপুরে যত্রতত্র গড়ে উঠেছে ১৫টি ইটভাটা। এরমধ্যে মাত্র ৩টি ভাটার বৈধ কাগজপত্র রয়েছে।চলতি বছর ভাটা মালিকরা অবৈধ ভাটায় ইট উৎপাদনসহ নতুন নতুন ভাটা স্থাপনার কাজ বহাল তবিয়াতে চালিয়ে যেতে থাকলে গত২ ডিসেম্বর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সকল ইটভাটা মালিকদের কাগজপত্র নিয়ে তাঁর দপ্তরে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেন। এ সময় ১৫টিভাটার মধ্যে মাত্র ৩ জন মালিক তাদের বৈধ কাগজপত্র জমা দেন। অন্য ভাটা মালিকরা এক মাসের সময় নেন। এ সময়ের মধ্যেশুধুমাত্র গাজী ব্রিকস উপজেলা নির্বাহী অফিসারের দপ্তরে সকল কাগজপত্র জমা দিয়েছেন। গত ২ জানুয়ারী ১ মাস অতিবাহিত হয়েগেলেও কোন ভাটা মালিক তাদের বৈধ কাগজপত্র উপজেলা নির্বাহী অফিসারের দপ্তরে জমা দিতে ব্যর্থ হন।

এসব ভাটায় পোড়ানো হচ্ছে কাঠ, নষ্ট করা হচ্ছে কৃষি জমি, উজাড় হচ্ছে বনভূমি। এতে ফসলহানিসহ মারাত্মকভাবে দূষিত হচ্ছেপরিবেশ। যে সমস্ত কৃষকরা অবৈধ ভাটা স্থাপনের বিরুদ্ধে আন্দোলন সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছিলেন ভাটা মালিকরা তাদেরকে চাঁদাবাজআখ্যা দিয়ে থানায় অভিযোগ ও সন্ত্রাসী-মাস্তান দিয়ে হয়রানি চালিয়ে যেতে থাকেন। এরমধ্যে সাতাবাড়িয়া গ্রামের রহমান ব্রিকস ওআলম ব্রিকস এবং দোরমুটিয়া গ্রামের কেশবপুর ব্রিকস পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র এবং জেলা প্রশাসনের লাইসেন্স নিয়ে পরিচালিতহচ্ছে। ইতোমধ্যে গাজী ব্রিকস উপজেলা নির্বাহী অফিসারের দপ্তরে সকল কাগজপত্র জমা দিয়েছেন। অন্য ১১টি ভাটার কোন বৈধকাগজপত্র নেই। এসব ভাটাগুলো হলো উপজেলার বায়সা কালিবাড়ি মোড়ে অবস্থিত গোল্ড ব্রিকস, পৌর এলাকার বালিয়াডাঙ্গাএলাকায় অবস্থিত খান ব্রিকস, ভোগতীনরেন্দ্রপুর এলাকায় জামান ব্রিকস, বেগমপুর গ্রামের রিপন ব্রিকস, সাতবাড়িয়া বাজারের ১০০গজ দূরে ঘন বসতিপূর্ণ এলাকার সুপার ব্রিকস, আগরহাটি গ্রামে প্রাইম ব্রিকস, সন্ন্যাসগাছা গ্রামের বিবি ব্রিকস-১ ও বিবি ব্রিকস-২নামের অবৈধ ইটভাটা প্রশাসনের মৌখিক অনুমতি নিয়ে বছরের পর বছর ইট উৎপাদন ও বিক্রি করে চলেছেন।

       

এছাড়া রিপন ব্রিকসের মালিক বারুইহাটি মোড়ে রোমান ব্রিকস নামে, ভোগতীনরেন্দ্রপুর এলাকায় জামান ব্রিকস ও সাতবাড়িয়াবাজারের ঘন বসতিপূর্ণ এলাকার সুপার ব্রিকস নামের ৩টি ইটভাটা চলতি বছর নতুন করে ভাটা স্থাপনার কাজ চালিয়ে যাচ্ছিলেন।এরমধ্যে ভাটা মালিক সিদ্দিকুর রহমান গতকাল সোমবার সকালে বারুইহাটি মোড়ে রোমান ব্রিকসে ইট উৎপাদনের জন্যে ভাটায়আগুন দেন। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মিজানূর রহমান ঘটনাস্থলে গিয়ে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে অবৈধভাবে ইটপোড়ানোর অভিযোগে ভাটা মালিক সিদ্দিকুর রহমানকে আটক করে ৬ মাসের জেলসহ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এদিকে,ভোগতী মোড়ে অবৈধভাবে স্থাপিত জামান ব্রিকসে গত ১০ জানুয়ারী থেকে ইট পোড়ানো শুরু করে। খবর পেয়ে একই দিন জামানব্রিকসের সত্ত্বাধিকারী মমতাজ বেগমকে ও ৬ মাসের জেল ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ভাটা মালিকরা বিভিন্ন এলাকা থেকে অবৈধভাবে জোরপূর্বক কৃষি জমির টপ সোয়েল কেটে এনে ইট তৈরীর জন্যে ঢিবি করে রাখেনভাটাগুলোতে। এ সমস্ত অবৈধ ভাটা স্থাপনের বিরুদ্ধে ইতোমধ্যে ফুসে উঠেছেন এলাকার কৃষকরা। তারা প্রতিনিয়ত কেশবপুর শহরেভাটার বিরুদ্ধে মিছিল ও মানববন্ধন অভ্যাহত রেখেছেন। উল্লেখ্য, কেশবপুরের তথাকথিত একজন সংবাদ কর্মী যিনি নিজেকে ২২টিপত্রিকার সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে থাকেন তাঁর সহযোগিতায় এ দুই ভাটা মালিক অবৈধভাবে ভাটায় ইট পোড়ানো কাজ শুরু করে বলেভাটা বিরোধী আন্দোলনকারীরা অভিযোগ তুলেছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজানূর রহমান বলেন, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বৈধ কাগজপত্র জমা না দিয়ে রোমান ব্রিকস ওজামান ব্রিকসের সত্ত্বাধিকারী সিদ্দিকুর রহমান ও মমতাজ বেগম ইট পোড়ানোর অপরাধে তাদের প্রত্যেককেই ৬ মাস করে জেল ও ৫০হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে তিনি যোগ করেন।

Please follow and like us:

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৬০১৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET