১লা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার, ১৭ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২১শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • সকল সংবাদ
  • খুলনার পাইকারী কাঁচাবাজারে শুরু হচ্ছে কোরবানির পশুরহাট।

খুলনার পাইকারী কাঁচাবাজারে শুরু হচ্ছে কোরবানির পশুরহাট।

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : সেপ্টেম্বর ০২ ২০১৬, ০৩:২৮ | 631 বার পঠিত

unnamed (1)মেহেদী হাসান,খুলনা থেকে-  খুলনা নগরীর জোড়াগেটস্থ পাইকারী কাঁচাবাজারে শুরু হচ্ছে কোরবানির পশুরহাট। কেসিসির পক্ষ থেকে দু’বার দরপত্র আহবান করা হলেও কেউ অংশগ্রহণ করেনি। কোরবানির পশু হাট সফল ও তদারকি করার জন্য ইতোমধ্যে হাট পরিচালনা কমিটি গঠন করা হয়েছে। এবার পশুর হাট সফল করে তোলার জন্য কয়েকটি পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। কেসিসির প্রধান রাজস্ব অফিসার ও দায়িত্বপ্রাপ্ত তথ্য কর্মকর্তা আরিফ নাজমূল হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ।কেসিসি সূত্রে জানা যায়, জোড়াগেট কোরবানির পশুরহাট ইজারা দেওয়ার জন্য গত ১৮ ও ২৩ আগস্ট দরপত্রের আহবান করা হয়। ওই দরপত্রে ইজারা (বিট) মূল্য ছিল ১ কোটি ৪৫ লাখ ৪৬ হাজার ৫শ ৫২ টাকা। দু’ দফা দরপত্র আহবান করা হলেও কোন ঠিকাদার অংশগ্রহণ করেননি। গত ১০ আগস্ট কেসিসি’র বিশেষ সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ২৩ আগস্ট এক সভায় কেসিসি নিজস্ব তত্ত্বাবধানেই পশুর হাট পরিচালনার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

এনিয়ে সপ্তমবারের জন্য একাধারে কেসিসি পশুরহাট পরিচালনা করে আসছে। সর্বশেষ ২০০৯ সালে ইজারাদার হাট ডেকে নেয়। ওই বছর ৪৪ লাখ ২০ হাজার ৭শ টাকা হাটের বিট মূল্য ছিল। এরপর ২০১০ সাল থেকে কেসিসি নিজস্ব তত্ত্বাবধানে জোড়াগেট কোরবানির পশুরহাট পরিচালনা করে আসছে। ২০১০ সালে পশুরহাট থেকে রাজস্ব আয় হয় ৯১ লাখ ৭৬ হাজার ৪শ ৩৮ টাকা, ২০১১ সালে এ হাট থেকে রাজস্ব আয় হয় ৯৭ লাখ ৪৪ হাজার ৪শ ২১ টাকা, ২০১২ সালে রাজস্ব আয় হয় ৯২ লাখ ৭০ হাজার ৯শ ৮৯ টাকা, ২০১৩ সালে রাজস্ব আয় হয় ১ কোটি ১৩ লাখ ৪৫ হাজার ৮শ ৬৬ টাকা, ২০১৪ সালে রাজস্ব আয় হয় ১ কোটি ৪৯ লাখ ৮৭ হাজার ৮০ টাকা ও সর্বশেষ ২০১৫ সালে রাজস্ব আয় হয় ১ কোটি ৭৩ লাখ ৬ হাজার ৭শ ১০ টাকা।

এবার কোরবানির পশুরহাটের হাসিল ঘর বৃদ্ধি, র‌্যাব-পুলিশের পাশাপাশি সশস্ত্র আনসার সদস্য মোতায়েন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। হাটের প্রবেশ গেট থেকে মামুর আস্তানা পর্যন্ত পাকা প্রশস্ত সড়কসহ ড্রেন ও ফুটপাত নির্মিত করা হয়েছে। এ জন্য পশু ক্রেতা-বিক্রেতা ও দর্শনার্থীরা স্বাচ্ছন্দে কোরবানি হাটে আসবে বলে হাট পরিচালনা কমিটি আশাবাদী। চলমান প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলা করতে হাট কর্তৃপক্ষ নানা প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে। ইতোমধ্যে হাটের জলাবদ্ধতা নিষ্কাশনের জন্য ড্রেনগুলো পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন শুরু করা হয়েছে। অবৈধ দখলদারদের আগামী সোমবার নাগাদ উচ্ছেদ করা হবে বলে কমিটি জানায়। এছাড়া হাটের বড় অংশ এবার পাকাকরণ করা হয়েছে। এতে করে হাট চলাকালীন বৃষ্টি হলে পশু রাখতে বিগত দিনের ন্যায় কোন সমস্যা হবে না।

এদিকে কোরবানির পশুরহাট সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে পরিচালনার জন্য বিগত দিনের ন্যায় এবারও কেসিসি হাট পরিচালনা কমিটি গঠন করেছে। ২১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সামসুজ্জামান মিয়া স্বপনকে আহবায়ক, প্যানেল মেয়র-২ হাফিজুর রহমান ও প্যানেল মেয়র-৩ রুমা খাতুন এবং ২০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর গাউসুল আযমকে উপদেষ্টা এবং ১৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাফিজুর রহমান মনি, ২৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলী আকবর টিপু, ১৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আমিনুল ইসলাম মুন্না, ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর খুরশিদ আহমেদ টোনা ও সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর রাবেয়া ফাহিদ হাসনা হেনাকে যুগ্ম আহবায়ক এবং বাকী কাউন্সিলরদেরকে সদস্য করে এ কমিটি গঠন করা হয়েছে।

কেসিসির বাজার সুপার গাজী সালাউদ্দীন জানান, ঈদ-উল আযহার এক সপ্তাহ আগে জোড়াগেট কোরবানির পশুরহাটের উদ্বোধন করা হবে। এবার বৃষ্টির পানি ও দুর্যোগ মোকাবেলার জন্য তারা আগেভাগেই প্রস্তুতি নিয়েছে। গরুর হাটের অর্ধেক এবার ইটের সলিং করা হয়েছে। করা হয়েছে পাকা ড্রেন। এতে করে খুব সহজেই পানি নেমে যাবে। পূর্বের ন্যায় দু’টি র‌্যাম থাকবে। এবারই প্রথম ছাগলের হাটের ওপর ছামিয়ানা দেওয়া হবে। যাতে করে ছাগল, ক্রেতা ও বিক্রেতারা বৃষ্টিতে না ভেজে। এবার প্রশস্ত পাকা সড়ক হওয়ার কারণে হাটের পরিধি কিছুটা বেড়েছে। একই সাথে হাসিল ঘরের পরিধি বাড়ানো হবে।

কেসিসির প্রধান রাজস্ব অফিসার ও দায়িত্বপ্রাপ্ত তথ্য কর্মকর্তা আরিফ নাজমূল হাসান জানান, এবার কোরবানির সময় গরু-ছাগল জবাই করে নগরীর পরিবেশ যাতে দূষিত না হয় সে জন্য আগেভাগেই প্রস্তুতি নেওয়া হবে। তারই অংশ হিসেবে গণসচেতনতা সৃষ্টির জন্য কয়েক হাজার লিফলেট ছাপানো হয়েছে। লিফলেটগুলো জোড়াগেট কোরবানির পশুরহাটে পশু ক্রেতাদের মাঝে বিলি করা হবে। হাসিল ঘর এক জায়গায় আনা হবে। হাসিল ঘরে কম্পিউটারের সংখ্যা ২৫টি থেকে বৃদ্ধি করে ৩৫টি করা হবে। এবার বৃষ্টির হলে যাতে পানি মাঠে জমে থাকতে না পারে তা অপসারণের জন্য পাম্পের ব্যবস্থা থাকবে। থাকবে বিগত বছরের ন্যায় জাল টাকা শনাক্তকরণ মেশিন। থাকবে সিসি ক্যামেরা ও ব্যবসায়ীদের টাকা সহজে লেনদেন করার জন্য বিকাশ ব্যাংকিং ব্যবস্থা। হাটে আসা অসুস্থ পশু চিকিৎসার জন্য থাকবে ২৪ ঘন্টাই পশু চিকিৎসক।

জোড়াগেট কোরবানির পশুরহাট পরিচালনা কমিটির আহবায়ক ২১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সামসুজ্জামান মিয়া স্বপন জানান, কোরবানির পশুরহাট প্রস্তুতির কাজ এগিয়ে চলছে। হাট সফলতার ব্যাপারে কেসিসির অভিজ্ঞতাকে এবারও তারা কাজে লাগাবেন।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4659826আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 4এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET