২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১১ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • সকল সংবাদ
  • ছাগলনাইয়ায় স্বামীকে সাজানো মামলায় গ্রেফতার অভিযোগে স্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন




ছাগলনাইয়ায় স্বামীকে সাজানো মামলায় গ্রেফতার অভিযোগে স্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন

মোহাম্মদ ইমন মিয়া, বাঙ্গরা,কুমিল্লা করেসপন্ডেন্ট।

আপডেট টাইম : মার্চ ২৮ ২০১৮, ২০:১৭ | 719 বার পঠিত | প্রিন্ট / ইপেপার প্রিন্ট / ইপেপার

নজরুল ইসলাম চৌধুরী, ছাগলনাইয়া (ফেনী) প্রতিনিধিঃ

ছাগলনাইয়া পৌরসভার মধ্যম মটুয়া গ্রামের গোল নাহার বেগম বুধবার (২৮ মার্চ) সকালে ছেলে হত্যা ও স্বামীকে সাজানো মামলায় গ্রেফতার করেছে এমন অভিযোগ করে ছাগলনাইয়া প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন করেন। সংবাদ সম্মেলনে গোল নাহার লিখিত বক্তব্যে বলেন, দীর্ঘদিন যাবত আমার স্বামী মোঃ আবুল কাসেম (৫২) বিজিবির সোর্স হিসেবে এবং ছেলে আবু আইয়ূব সবুজ (২৬) পুলিশের সোর্স হিসেবে কাজ করে আসছিলো। এতে করে তাদের সাথে ছাগলনাইয়া উপজেলার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী ও চোরাকারবারিদের বিরোধের জের ধরে এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীরা ২০১৭ সালের ২৫ অক্টোবর উপজেলার জয়নগর গ্রামে আমার স্বামী আবুল হাসেমের উপর হামলা চালিয়ে বেদম মারধর করে হত্যার চেষ্টা চালায়। এই ঘটনায় ফেনীর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা হয়েছে ( মামলা নং-২৪৩/১৭)। চলতি বছরের ৫ ফেব্রুয়ারি বিকাল ৩ ঘটিকার সময় মটুয়া রাস্তার মাথা এলাকায় মাদক ব্যবসায়ী ও চোরাকারবারিরা আমার ছেলে আবু আইয়ূব সবুজের উপর হামলা চালিয়ে মারধর করে মোটরসাইকেল যোগে তাকে অপহরনের চেষ্টা করে। সবুজের আর্ত চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা সবুজকে মোটরসাইকেল থেকে ফেলে পালিয়ে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় সবুজকে ছাগলনাইয়া সরকারী হাসপাতালে পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে ফৌজদার হাট বক্ষব্যাধি হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৮ ফেব্রুয়ারি সবুজ মৃত্যুবরণ করে। এ ব্যাপারে সবুজের বাবা বাদী হয়ে ১২/১৩ জনকে আসামী করে ছাগলনাইয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে (মামলা নং-২৩)। গোল নাহার বেগম লিখিত বক্তব্যে আরো বলেন, গত ১৯ মার্চ রাত ১০ টার সময় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের একটি রেইডিং টিম ছাগলনাইয়ার সীমান্তবর্তী মটুয়া গ্রামে আমাদের ঘর ও ঘরের আশপাশ এলাকায় অভিযান চালায়। এসময় আমার স্বামী আবুল কাসেমকে গ্রেফতার করে। কি কারনে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে তা জিজ্ঞেস করলে অভিযান পরিচালনাকারীরা বলেন, আমার স্বামীর নাম প্রধান মন্ত্রীর দপ্তর থেকে আসা মাদক ব্যবসায়ীদের তালিকায় রয়েছে। পরে অভিযান পরিচালনাকারীরা আমাদের বাড়ী থেকে আধা কিলোমিটার দূরে আবু ছৈয়দের বাড়ীর পুকুরের দক্ষিণ পূর্ব কোনের পাড় থেকে ৯৮ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করে এবং ঐ ফেন্সিডিলের বোতল গুলো দিয়ে আমার স্বামীকে চালান করে। রহস্যজনক কারনে মামলার ঘটনাস্থল দেখানো হয়। আমাদের বসত ঘরের পশ্চিম পাশের পুুকুর পাড়। এ ব্যাপারে মাদকদ্রব্য  নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক মোঃ ইকবালুর রহমান বাদী হয়ে ছাগলনাইয়া থানায় আমার স্বামী আবুল কাসেমের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে যা সম্পুর্ণ মিথ্যা ও সাজানো। গোল নাহার বলেন, প্রধান মন্ত্রীর দপ্তর থেকে আসা তালিকায় যে নাম আবুল কাসেম নামে উল্লেখ আছে সে কাসেম আর আমার স্বামী আবুল কাসেম এক ব্যক্তি নয়। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থাকা গোল নাহার বেগম, তার ছেলে আরমান হোসেন সহ মোঃ হারিছ ও নুর আলম দাবী জানিয়ে বলেন, বিষয়টি সঠিক তদন্ত পুর্বক যথাযথ কর্তৃপক্ষ যথাযথ ব্যবস্থা নিবেন।

Please follow and like us:

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৬০১৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET