১৭ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার, ৩রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৬ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনামঃ-

জনপ্রিয় কবি আমজাদ হোসাইন-আজিম উল্যাহ হানিফ

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : অক্টোবর ১৩ ২০১৬, ১৯:৩১ | 695 বার পঠিত

জনপ্রিয় কবি আমজাদ হোসাইন
আজিম উল্যাহ হানিফ
বহু প্রতিভার অধিকারী এক অদম্য দৃষ্টি প্রতিবন্ধি যুবকের নাম আমজাদ হুসাইন। কখনও দেখা হয়নি তার এই পৃথিবীর অপরুপ সৌন্দর্য্য। দেখার প্রবল ইচ্ছা থাকলেও হয়নি পিতা-মাতা, স্ত্রী, সন্তানসহ কোন আপনজনদের প্রতিচ্ছবি। এই পৃথিবীর অপূর্ব সৌন্দর্য্য, হৃদয়ের কোটায় একে নিয়েছেন আপনজনদের প্রতিচ্ছবি। এই পৃথিবীকে দেখর ইচ্ছা প্রবল, আর এই প্রবল ইচ্ছা থেকেই শুরু করেছেন সাহসী এক জীবন সংগ্রাম। কারো নিকট হাত অর্থের জন্য হাত পাতেন নি। তার কোন ইচ্ছাও ছিলনা, তার একটাই চাওয়া দৃষ্টি ফিরে পাওয়া। অন্যের পড়া শুনে শুনে শিখে ও একজন সাহায্যকরীর মাধ্যমে লিখে ইতিমধ্যে তিনি এরাবিক লাইনে সর্বোচ্চ ডিগ্রি অর্জন করেছেন। জীবন সংগ্রামের অংশ হিসাবে লিখেছেন একাধিক কাব্য গ্রন্থ ও উপন্যাস। প্রাইভেট টিউশনিসহ নিজের গড়ে তুলেছেন একটি বহুমুখী শিক্ষা একাডেমী। এত কিছুর পর ও তিনি চিকিৎসার অর্থে যোগান ব্যর্থ। জায়গায় জায়গায় হয়েছেন প্রতারিত। এই হতভাগ্য যুবক,জনপ্রিয় কবি আমজাদ হুসাইনের জন্ম কুমিল্লা জেলা চোদ্দগ্রাম উপজেলার মুন্সিরহাট ইউনিয়নের বাসন্ডা গ্রামে। পিতা মোঃ রুহুল আমিন মাতা মোসাঃ খদীজা হাজারীর চার সন্তানের সর্ব কনিষ্ট তিনি। অধ্যয়নরত অবস্থায় লেখার একটি হাস্যরস সমৃদ্ধ-ব্যাঙ্গত্বক কবিতা বিশ্বপ্রেমিক কবিতার মাধ্যমে লেখালেখি শুরু। ছাপা হয় বেশ কয়েকটি জাতীয় দৈনিক,সাপ্তাহিক ও মাসিক পত্রিকায়। ২০০৮ সালে তার প্রকাশিত প্রথম কাব্য গ্রন্থ দেশের মাটি সে বছরের ২১ শে বইমেলায় পাঠকদের মাঝে যথেষ্ট সাড়া জাগায়। এরপর একে একে মোট আটটি কাব্য ও উপন্যাস প্রকাশিত হয়েছে ইতিমধ্যে। প্রকাশিত অন্যবইগুলো হলো রক্তাক্ত জামা (কাব্য), পরম প্রেমের পড়শে (উপন্যাস), উদাসী (উপন্যাস), ডিজিটাল ভন্ড ( রম্য রচনা) ,নির্বাক তরুনী (উপন্যাস), ব্যথার নদী (কাব্য), সোনালী চাদর (কাব্য)। এছাড়া ও দেশ ও মানুষ (দেশাত্মকবোধক কবিতা), সোনার পাখি (ছড়া) সহ আরও ৬টি পান্ডুলিপি রয়েছে যা প্রকাশের স্বপ্ন দেখেন এখনো। সঠিক পৃষ্ঠপোষকতা না পেলে এ স্বপ্ন ও ফেকাশে হওয়ার আশংকা রয়েছে। সহজ সরল মিষ্টি ভাষী আমজাদ হোসাইন পরতে পরতে হয়েছে প্রতারিত।প্রতারণার শিকারের বিষয়ে দীর্ঘশ্বাস ফেলে তিনি জানান, আমার লেখা তৃতীয় পান্ডুলিপি পরম প্রেমের পড়শে (উপন্যাসটি) ঢাকাস্থ একতা প্রকাশনী কর্তপক্ষ ২০০৯ সালে পান্ডুলিপি নিয়ে যায়। পরে বইটি অন্য আরেকজনের নামে ছাপিয়েছেন তারা। আমি তাদের সাথে অনেক বার যোগাযোগ করতে চেয়েও ব্যর্থ হই। ২০১০ সালে শব্দলিপি প্রকাশনা সংস্থা উদাসী উপন্যাসটি খরচ বাবদ আমার কাছ থেকে ১৫ হাজার টাকা নিয়ে বইটি প্রকাশের পর আমার সাথে আর কোন যোগাযোগ করেনি। আমি যোগাযোগে ব্যর্থ হই। সত্য কথা প্রকাশনা থেকে ২০১১ সালে ডিজিটাল ভন্ড (রম্য রচনা) বইটি প্রকাশিত হয়। প্রকাশনা বাবদ আমার কাছ থেকে অগ্রিম ১২ হাজার টাকা নিয়ে যায়। প্রকাশের পর তারা আমাকে মাত্র ৫০ কপি বই ছাড়া আর কিছুই দেয়নি। এরপর থেমেই যায়নি আমার কলম। অনেক বড় ধরনের আশ্বাস এর বিনিময়ে প্রিভেইল গ্রুপ ২০১২ সালে স্বত্ব কিনে নেন ব্যথার নদী নামক কাব্যগ্রন্থটির। সে বছরেই বইটি প্রকাশিত হয় সত্য কথা প্রকাশনী থেকে। প্রিভেইল গ্রুপ তাদের গ্রাহক শুভাকাংখীদের মাঝে বইটি সৌজন্য কপি বিলি করে বেশ সুনাম র্অজন করে। পরে আমাকে চিকিৎসা বাবদ ১৫ টাকা দেয়। আমজাদ হোসাইনকে এত সব প্রতারণাও থামিয়ে রাখতে পারেনি আলোর মুখ দেখার স্বপ্ন । দুনিয়ার আলো যে তাকে দেখতেই হবে। সে স্বপ্নেই থেকেই ২০১২ সালে আবারও তৈরী করেন সোনালী চাদর নামক একটি কাব্যগ্রন্থ। এবার প্রিভেইল গ্রুপের পথ অনুসরণ করে আইসিএল গ্রুপ। চিকিৎসার সকল খরচ বহন করবে বলে কাব্যগ্রন্থটি সকল স্বত্ব কিনে নেন তারা। যথা সময়ে তারা গ্রন্থটি প্রকাশ করে সত্য কথা প্রকাশনী থেকে। তাদের গ্রাহক,কর্মকর্তাসহ শুভাকাংখীদের মাঝে বইটির সৌজন্য কপি হিসেবে বিলি করে বেশ সুনাম অর্জন করে আইসিএল গ্রুপ। বিনিময় আইসিএল গ্রুপ মাত্র ১০ হাজার টাকা দেয় বইয়ের লেখক,জনপ্রিয় কবি আমজাদ হোসাইনকে। অথচ বইটির প্রকাশনা খরচ হয়েছে ৪০ হাজার টাকা। যা আমজাদ হোসাইন নিজেই বহন করেন। দৃষ্টি প্রতিবন্ধী আমজাদ হোসাইনের আলো দেখার স্বপ্ন অন্ধকারেই রয়ে গেল। জীবনের পরতে পরতে এত সব প্রতারণার অনেকটা অভিমানেই নিজেকে সব কিছু থেকে আড়াল করে নিতে চেয়েছিল এই জনপ্রিয় কবি ও লেখক। কিন্তু পারেন নি তার সবচেয়ে কাছের মানুষটির জন্য। সে ভালোবাসার মানুষ নুরজাহান তার হৃদয় উজাড় করা ভালবাসাও উৎসাহে সে এগিয়ে যাচ্ছেন এক অনিশ্চিত স্বপ্নের দেশে। নুর জাহানের চাওয়া তবুও বেছে থাকুক তার এই স্বপ্নের পুরুষটি। তার সঙ্গী হয়ে হাজার বছর । চেষ্টাও অব্যাহত স্বামীর দৃষ্টি ফিরে পাওয়ার। এই দম্পতির ভালবাসার ফসল ৩ বৎসর বয়সী একমাত্র ছেলে মো: সালমান আরেফিন নুহ। লেখক ও কবি আমজাদ হোসাইন এত সব সমস্যার পরও সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে ইতিমধ্যে গড়ে তুলেছেন একটি ব্যক্তিগত লাইব্রেরী (পাঠাগার) তার সংগ্রহে রয়েছে হরেক রকমের প্রায় দেড় সহ¯্রাধিক বই। এমন সাদা মনের একজন মানুষই হলেন আমজাদ হোসাইন।
লেখক: সহ-সভাপতি-জাতীয় কবিতা মঞ্চ,কুমিল্লা জেলা শাখা।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4577194আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 2এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET