২২শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার, ৬ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৫ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

শিরোনামঃ-

ঢাকায় হাইমচরের কাজের মেয়ের উপর অমানসিক নির্যাতন॥ আটক ১

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : সেপ্টেম্বর ১৫ ২০১৬, ১৫:০৫ | 720 বার পঠিত

untitled-1-copyহাসান আল মামুন-
চাঁদপুরের হ্ইামচর উপজেলার নয়ানী গ্রামের মোঃ মন্টু মাতাব্বরের ৯ বছরের শিশু কন্যা গৃহকর্মী জান্নাতুল ফেরদৌস কে ঢাকার গাজিপুর বিমানবন্দরে চাকুরীরত মোঃ ওমর ফারুকের বাসায় জিয়ের কাজ করা অবস্থায় বছর জুড়ে বর্বর অমানবিক নির্যাতন চালিয়ে ক্ষত বিক্ষত করে দিয়েছে তার পুরো শরীর। এ ঘটনার সাথে জড়িত মোস্তফা সরদারকে আটক করেছে হাইমচর থানা পুলিশ। বর্তমানে গুরুতর আহত গৃহকর্মী জান্নাতুল ফেরদৌস হাইমচর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন। এ নিয়ে হাইমচর থানায় একটি মামলার প্রস্তুতি চলছে।
জানাযায় নয়ানী গ্রামের মন্টু মাতাব্বরের মেয়ে জান্নাতুল ফেরদৌসকে গত বছর মোস্তফা সরদার ফিরোজা বেগমের কাছ থেকে ঢাকা গাজিপুরে বসবাসরত তার সালীকা মনি বেগমের বাসায় কাজের জন্য নিয়ে যায়। গত একবছর ধরে অসহায় ৯ বছরের শিশু জান্নাতুল ফেরদৌসের উপর অমানুষিক নির্যাতন চালিয়ে গুরুতর আহত করে। তার পুরো শরিরে ইলেক্ট্রীক তার দিয়ে মেরে ক্ষত বিক্ষত করে দিয়েছে ও মাথায় টাইলসের সাথে বাড়ি দিয়ে মাথার মধ্যে বিভিন্ন যায়গায় থেতলে গিয়ে যখম হয়ে আছে। অসহায় মিশুটির দিকে তকালে যে কোন ধরনে লোক হোকনা কেন তার চোখের জল নিমিষেই চলে আসে। শিশুটিকে ২ দিনে একবার খাবার দেওয়া হতো এবং তাকে ভাতরুমে ঘুমাতে দেওয়া হতো বলে আহত শিশু ফেরদৌস জানান।
নির্যাতিত শিশুর মা’ ফিরোজা বেগম বলেন, আমি বড় অসহায় আমার স্বামী আমাদের কোন খোজ খবর নেয় না। সে থেকেও যেন নেই। আমার বৃদ্ধ মা’ বৃক্ষা করে আমার ও সন্তনদের দুবেলা খাবার যোগান দেন। আমার এ অসহায় অবস্থা দেখে মোস্তফা সরদার আমাকে মিথ্যে আস্বাস দেখিয়ে আমার মেয়ে ভাল থাকবে বলে ঢাকায় তার সালীর বাসায় নিয়ে যায়। এক বছর ধরে আমি আমার মেয়ের সাথে যোগাযোগ করতে চাইলেও তারা যোগাযোগ করতে দেয়নি। গত ১৪ সেপ্টম্বর বুধবার সন্ধায় মোস্তাফা সরদার আমার মেয়েকে বাড়ির সামনে রেখে চলে যায়।
মোস্তফা সরদার জানান আমি জান্নাতুল ফেরদৌসকে আমার সালিকার বাসায় কাজে নিয়ে দিয়ে ছিলাম। তারা প্রথমে ভালই ছিল। হঠাত করে আমার সালিকার টাকা ফয়সা হওয়ায় তার অহংকার বেড়ে যায়। তার অহংকারে এ শিশুটির উপর অমানুষিক ভাবে নির্যাতন চালায়। সালিকা মনি আমাকে খবর দিয়ে আহত অবস্থায় শিশুটিকে আমার কাছে দিয়ে দেয়। আমি ৭দিন যাবত ঢাকাতে তার প্রাথমিক ভাবে চিকিৎসা করে গতকাল তাদের বাসায় পৌছে দেই।
নির্যাতিত শিশুর চিকিৎসক হাইমচর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাঃ দিপংকর দে জানান শিশুটির অবস্থা খুবই আশংকা জনক। আমাদের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বোর্ড থেকে যতদিন পর্যন্ত পুরো পুরি সুস্থ না হবে ততদিন পর্যন্ত তার চিকিৎসা আমরা চালিয়ে যাব। উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজন হলে তারও ব্যবস্থা নিব।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4759249আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 2এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET