৯ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার, ২৪শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৪শে রজব, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • সকল সংবাদ
  • নৌকাপাগল রিক্সাওয়ালা শাহীন তার রিক্সা নিয়ে ঘুরছেন সারাদেশ

নৌকাপাগল রিক্সাওয়ালা শাহীন তার রিক্সা নিয়ে ঘুরছেন সারাদেশ

হুমায়ন আরাফাত, আশুলিয়া করেসপন্ডেন্ট।

আপডেট টাইম : জুন ০৯ ২০১৭, ২২:০৭ | 631 বার পঠিত

তন্ময় আহমেদ নয়ন লালমনি, রহাট প্রতিনিধি :
বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ আমাকে শিখিয়েছে দেশপ্রেম,আমি বঙ্গবন্ধুকে দেখিনি, বঙ্গবন্ধুকে যদি পেতাম, তাহলে মাথায় নিয়ে ঘুরে বেড়াতাম। আজ বঙ্গবন্ধু আমাদের মাঝে নেই, কিন্তু রেখে গেছেন তার লাল সবুজ পতাকা। সেই পতাকাকে রিক্সায় বসিয়ে বঙ্গবন্ধু’র আদর্শে অনুপ্রেরিত হতে বর্তমান প্রজন্মের প্রতি আহবান জানাতে নৌকার রিক্সায় প্যাডেল ঘুরিয়ে দেশ ঘুরছি। কথা গুলো কুড়িগ্রাম জেলার ভুরুঙ্গামারী উপজেলার দক্ষিণ বলদিয়া গ্রামের আব্দুর গফুরের ছেলে রিক্সা চালক শাহীন মিয়ার।
আজ শুক্রবার ৯জুন দুপুরে তিনি রংপুর জেলার তারাগঞ্জ এলাকা থেকে রংপুর শহরের দিকে। এরআগে ৩জুন শনিবার রাত সাড়ে ৯টায়  লালমনিরহাট শহরের হাড়িভাঙ্গা এলাকায় পৌছে শাহীনের নৌকা রিক্সা। ২৫ মার্চ কালো রাতে গাজিপুর থেকে রিক্সা যাত্রা শুরু করেন শাহীন। কিশোর বয়স থেকে রিক্সা চালক হিসেবে গাজিপুর চেরাকালী সুরঙ্গ রোডের একটি ভাড়া বাসায় এক ছেলে এক মেয়ে ও স্ত্রীকে নিয়ে বসবাস করছেন শাহীন। শাহীন বলেন, বর্তমান প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মত দেশপ্রেমিক হয়ে গড়ে তোলা লক্ষ্য তার। ছোট বেলায় বঙ্গবন্ধুর দেশ প্রেমের গল্প তাকে দারুণ ভাবে অনুপ্রেরিত করেছে। দেশের মানুষের জন্য জীবন বাজি রেখে সংগ্রাম, কারাভোগ, জুলুম অত্যাচার মেনে নিয়েছেন বঙ্গবন্ধু। যে লোকটির জন্য আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি, সেই মহামানব বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্য কিছু করার ইচ্ছা থাকলেও সমর্থ নাই আমার। অভাবের সংসারে লেখা পড়া করার সুযোগ না হওয়ায় কিশোর বয়স থেকে রিক্সা চালাতে শুরু করি। কুড়িগ্রাম থেকে চলে আসি ঢাকা গাজীপুরে। সেখানেই ২ ছেলে-মেয়ে আর স্ত্রীকে নিয়ে ছোট্ট সংসার। অভাবের সংসারে রিক্সার আয়ের সামান্য পরিমান প্রতিদিন সঞ্চয় করি বঙ্গবন্ধুর জন্য। শাহীন বলেন, বঙ্গবন্ধু জন্য সঞ্চিত অর্থ যখন ৪৫ হাজার টাকায় দাঁড়ায় তখন সেই সঞ্চিত অর্থে একটি নৌকা রিক্সা তৈরী করি। এরিক্সার পুরো কভারে বঙ্গবন্ধুও প্রধানমন্ত্রীর ছবি। রিক্সার ছাদে বড় নৌকা, ৩ চাকার উপরে তিনটি ছোট নৌকা ও যাত্রীর সিটে বঙ্গবন্ধুর লাল সবুজের পতাকা। মাথার হেলমেডও নৌকায় তৈরী। এ বেশে পুরো দেশ ঘুরবো। প্যাডেল ঘুরানোর বিশেষ এ নৌকা রিক্সা তৈরীতে খরচ পড়েছে ৪২ হাজার টাকা। এ রিক্সার সিটে থাকবে বঙ্গবন্ধু লাল সবুজের পতাকা। বিশেষ এ নৌকা রিক্সা দেখলে উৎসুক জনতা আমাকে দাঁড় করাবে। তখনই বঙ্গবন্ধুর আদর্শ আর দেশ প্রেমে উদ্বুদ্ধ হওয়ার আহবান জানাবো। একজন লোক বঙ্গবন্ধুর মত দেশ প্রেমিক হলেই আমার পরিশ্রম ও স্বপ্ন পুরন হবে। তাই দেশ ঘোরার পরিকল্পনা আমার। ২৫ মার্চ জাতির জন্য অভিশপ্ত একটি রাত, তাই এই রাতেই তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আলোর বার্তা নতুন প্রজন্মের কাছে পৌছাতে রিক্সা নিয়ে বাড়ি থেকে বের হই। পুরো দেশের নতুন প্রজন্মের কাছে বঙ্গবন্ধুর আদশের বার্তা না পৌছা পর্যন্ত বাড়ি ফিরবো না। আওয়ামী লীগের কোন পদে আছেন কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি কোন দলকে নয়, বঙ্গবন্ধুকে রিক্সায় নিয়ে ঘুরছি। লাল সবুজের পতাকার মাঝেই তিনি (বঙ্গবন্ধু) লুকিয়ে আছেন।
Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4410422আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 1এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET