২৯শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার, ১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৮ই জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনামঃ-

নড়াইলের খলিশাখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জলাবদ্ধতা ব্যহত হচ্ছে শিক্ষা দান

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : সেপ্টেম্বর ২৬ ২০১৬, ১৪:৪৬ | 643 বার পঠিত

primari-phatoউজ্জ্বল রায়, নড়াইল জেলা প্রতিনিধি –
নড়াইল-২৬-৯-১৬-সেপ্টেম্বর নড়াইলের খলিশাখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠটি সামান্য বৃষ্টিতে তলিয়ে যায়। কাদাপানিতে ব্যাহত হচ্ছে পাঠদান। অসুস্থ্য হচ্ছে শিশু শিক্ষার্থীরা। বিদ্যালয় মাঠে বালি ভরাটের জন্য আবেদন করেও মেলেনি সরকারি বরাদ্দ। এখন প্রধান মন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছেন বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদ ও এলাকাবাসী। আমাদের নড়াইল জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায়ের পাঠানো তথ্যর ভিতিতে জানা যায় বিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বর্তমান সরকারের গত মেয়াদে বিদ্যালয়ে একটি সুসজ্জিত ভবন নির্মান করা হয়। কিন্তু বিদ্যালয়ের পশ্চিম পাশ দিয়ে লোহাগড়া বড়দিয়া পাকা সড়ক ও দক্ষিন পাশে গ্রাম্য রাস্তার কারনে সামান্য বৃষ্টি হলেই পানি জমে তলিয়ে যায়। জমে থাকা পানিতে ভিজে কোমলমতি শিশুরা প্রতিনিয়ত অসুস্থ্য হয়ে গড় হাজির হচ্ছে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নারগিস পারভীন জানান, বিদ্যালয়টি উপজেলা প্রশাসনের দ্বার গোড়ায় হলেও উপজেলা প্রশাসন থেকে বিদ্যালয়ের উন্নয়নের জন্য আমরা কোন সাহায্য পাইনা। বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি প্রভাষক আবু আব্দুল্লাহ জানান, শিক্ষার প্রতি গুরুত্ব দিয়ে সরকার বিদ্যালয়টি সুসজ্জিত ববনে রুপান্তরিত করেছে। অথচ বিদ্যালয়ের আঙ্গিনায় সামান্য বৃষ্টিপাতে পানি জমে শিশুরা অসুস্থ্য হচ্ছে এ ব্যাপারে ৫.৬ বছর ধরে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রনালয়,জেলা প্রশাসক,নড়াইল, জেলা পরিষদ প্রশাসক, লোহাগড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার , উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও শিক্ষা অফিসারের নিকট লিখিত আবেদন করেও কোন ফল হয়নি। সর্বশেষ এ বছরের এপ্রিল মাসে নড়াইলের জেলা প্রশাসক হেলাল মাহমুদ শরীফ, জেলা পরিষদ প্রশাসক নড়াইল, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা চেয়ারম্যানের নিকট বিদ্যালয়ে জলাবদ্ধতার ছবিসহ আবেদন করা হয়। শিশুদের দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষায় বাউন্ডারী ওয়াল নির্মানের জন্য প্রধান মন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন অভিভাবক ও বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ। মাঠটি সামান্য বৃষ্টিতে তলিয়ে যায়। কাদাপানিতে ব্যাহত হচ্ছে পাঠদান। অসুস্থ্য হচ্ছে শিশু শিক্ষার্থীরা। বিদ্যালয় মাঠে বালি ভরাটের জন্য আবেদন করেও মেলেনি সরকারি বরাদ্দ। এখন প্রধান মন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছেন বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদ ও এলাকাবাসী। বিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বর্তমান সরকারের গত মেয়াদে বিদ্যালয়ে একটি সুসজ্জিত ভবন নির্মান করা হয়। কিন্তু বিদ্যালয়ের পশ্চিম পাশ দিয়ে লোহাগড়া বড়দিয়া পাকা সড়ক ও দক্ষিন পাশে গ্রাম্য রাস্তার কারনে সামান্য বৃষ্টি হলেই পানি জমে তলিয়ে যায়। জমে থাকা পানিতে ভিজে কোমলমতি শিশুরা প্রতিনিয়ত অসুস্থ্য হয়ে গড় হাজির হচ্ছে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নারগিস পারভীন জানান, বিদ্যালয়টি উপজেলা প্রশাসনের দ্বার গোড়ায় হলেও উপজেলা প্রশাসন থেকে বিদ্যালয়ের উন্নয়নের জন্য আমরা কোন সাহায্য পাইনা। বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি প্রভাষক আবু আব্দুল্লাহ জানান, শিক্ষার প্রতি গুরুত্ব দিয়ে সরকার বিদ্যালয়টি সুসজ্জিত ববনে রুপান্তরিত করেছে। অথচ বিদ্যালয়ের আঙ্গিনায় সামান্য বৃষ্টিপাতে পানি জমে শিশুরা অসুস্থ্য হচ্ছে এ ব্যাপারে ৫;৬ বছর ধরে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রনালয়,জেলা প্রশাসক,নড়াইল, জেলা পরিষদ প্রশাসক, লোহাগড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার , উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও শিক্ষা অফিসারের নিকট লিখিত আবেদন করেও কোন ফল হয়নি। সর্বশেষ এ বছরের এপ্রিল মাসে নড়াইলের জেলা প্রশাসক হেলাল মাহমুদ শরীফ, জেলা পরিষদ প্রশাসক নড়াইল, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা চেয়ারম্যানের নিকট বিদ্যালয়ে জলাবদ্ধতার ছবিসহ আবেদন করা হয়। শিশুদের দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষায় বাউন্ডারী ওয়াল নির্মানের জন্য প্রধান মন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন অভিভাবক ও বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ। ।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4655277আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 13এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET