২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১২ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • সকল সংবাদ
  • নড়াইলে চালের বাজার বেসামাল কেজি প্রতি দাম বেড়েছে চার থেকে পাঁচ টাকা।

নড়াইলে চালের বাজার বেসামাল কেজি প্রতি দাম বেড়েছে চার থেকে পাঁচ টাকা।

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : অক্টোবর ১৩ ২০১৬, ০১:২৩ | 640 বার পঠিত

rice-12-10-16উজ্জ্বল রায়, নড়াইল জেলা প্রতিনিধি – নড়াইলে চালের বাজার বেসামাল হয়ে উঠেছে। দুই সপ্তাহের ব্যবধানে কেজি প্রতি দাম বেড়েছে চার থেকে পাঁচ টাকা। চালের দাম হঠাৎ করে বেড়ে যাওয়ার পেছনে মিল মালিকদের দুষছেন ব্যবসায়ীরা। বাজারের চালপট্টিতে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত দু’সপ্তাহ যাবৎ চালের বাজার অস্থিতিশীল হয়ে রয়েছে। হঠাৎ করে চালের মূল্য বৃদ্ধির জন্য স্থানীয় ব্যবসায়িরা মিল মালিকদের দায়ী করছেন। নড়াইল জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায়ের পাঠানো তথ্যর ভিতিতে জানা বোরো ধানের চাল বিক্রি হচ্ছে গড়ে ৩৮ টাকা দরে; যা কিছুদিন আগেও ছিল ৩৩ টাকা। ৪০ টাকা কেজির মিনিকেট চাল এখন ৪৮ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর বাংলামতি চাল ৪০ থেকে বেড়ে ৫২ টাকায় উঠেছে। চালের দাম হঠাৎ করে বেড়ে যাওয়ায় নি¤œ আয়ের মানুষজনদের মধ্যে ক্ষোভ ও অসন্তোষের সৃষ্টি হয়েছে। দেশের বেশিরভাগ জেলা-উপজেলায় খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় গরিবদের জন্য দশ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি শুরু হলেও তালিকা প্রণয়নে জটিলতার কারণে তা এখনো চালু হয়নি। সে কারণে চালের দাম বাড়তি বলে অনেকের ধারণা। লোহাগড়া শহরের মসজিদপাড়ার চায়ের দোকানি কামরুল ইসলাম বলেন, ‘বাজারগুলোতে সরকারি কোনো নজরদারি নেই। এ কারণেই ব্যবসায়ীরা চালের দাম ইচ্ছেমতো নির্ধারণ করছে।’ লক্ষ্মীপাশার মৎসজীবী তাপস বিশ্বাস বলেন, ‘চালের বাজার বেসামাল হয়ে পড়লেও দাম নিয়ন্ত্রণে কারো মাথাব্যথা নেই। পরিবার-পরিজন নিয়ে খুব কষ্টে আছি।’কচুবাড়িয়া গ্রামের আদিবাসী ভগীরথ কর্মকার ক্ষোভের সঙ্গে বলেন, ‘সরকার দেশজুড়ে দশ টাকায় চাল বিক্রির ব্যবস্থা করলেও লোহাগড়ায় এখনো তা চালু হয়নি। বর্ষা-বাদলের এই দিনগুলোতে বাড়তি দামে চাল কিনতে গিয়ে হিমশিম খেতে হচ্ছে।’দাম বাার ব্যাপারে জানতে চাইলে লোহাগড়া বাজারের মাসুদুর রহমান, গণেশ সাহাসহ একাধিক চাল ব্যবসায়ী বলেন, ‘এখানকার ব্যবসায়ীরা কুষ্টিয়ার খাজানগর, যশোরের চৌগাছা এবং দিনাজপুর থেকে চাল কিনে আনেন। মোকামে চালের সরবরাহ কম হওয়ায় দাম বেড়েছে। তা ছাড়া, চালের দাম বাড়ার পেছনে মিল মালিকরাও দায়ী।’এসব বিষয়ে কথা হয় উপজেলা নির্বাহী অফিসার সেলিম রেজার সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘বাজার মনিটরিংয়ের জন্য একটি কমিটি রয়েছে। তা ছাড়া, স্থানীয় পৌরসভাও বাজার নিয়ন্ত্রণে কাজ করে থাকে।’তিনি বাজার মনিটরিংয়ের বিষয়টি দেখবেন বলে জানান।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4723028আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 7এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET