১লা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার, ১৭ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২১শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনামঃ-

নড়াইলে বিয়ের নামে প্রতিবন্ধী নারীর সাথে প্রতারণা

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : সেপ্টেম্বর ১০ ২০১৬, ১৩:২৬ | 645 বার পঠিত

protarok-10916উজ্জ্বল রায়, নড়াইল জেলা প্রতিনিধি –

শারীরিক প্রতিবন্ধী নাদিরা খাতুনের হিসাববিজ্ঞান অনার্স তৃতীয় বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষা শুরু হয়েছে। কিন্তু শারীরিক ও মানসিক অসুস্থতার জন্য সে পরীক্ষা সম্পন্ন করতে পারবে কিনা তা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। এক বছর আগে সমবয়সি রিয়াজকে ভালোবেসে বিয়ে করলেও এখন নাদিরার সাথে স্বামীর কোনো যোগাযোগ নেই। এখন সে অন্তসত্তা। শ্বশুর-শাশুড়িও এ বিয়ে মেনে নিচ্ছে না। নাদিরা তার বিয়ের সামাজিক স্বীকৃতির জন্য শ্বশুর-শাশুড়ি, আতœীয় স্বজন, স্থানীয় মাতব্বর, মেম্বর ও চেয়ারম্যানদের দারস্থ হয়েও কোনো সুফল পায়নি। আমাদের নড়াইল জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায় পাঠানো তথ্যর ভিতিতে জানা জায়
জানা গেছে, গত ২০১৫ সালের ১০ নভেম্বর সদরের ভদ্রবিলা ইউনিয়নের সরকেলডাঙ্গা গ্রামের সালাম মোল্লার পূত্র রিয়াজুল ইসলাম ও সদরের মাইজপাড়া ইউনিয়নের চারিখাদা গ্রামের ইমদাদুল ইসলামের কন্যা নাদিরা খাতুন একে অপরকে ভালোবেসে রেজিষ্ট্রি বিয়ে করে। বিয়ের পর ৩মাস তারা ঢাকায় বসবাস করলেও পরে রিয়াজ স্ত্রীকে তার (নাদিরার) বাবার বাড়ি পাঠিয়ে দেয়। এর পর থেকে তাদের মধ্যে কোনো যোগাযোগ নেই। বর্তমানে নাদিরা ৭ মাসের অন্তসত্তা। সমাজসেবা অধিদপ্তরের নিবন্ধিত শারীরিক প্রতিবন্ধী (নিবন্ধন নম্বর-১১৩৭) নাদিরা খাতুন অভিযোগে জানান, নিয়ম-কানুন মেনেই তাদের বিয়ে হয়েছে। এখন স্বামীর সাথে কোনো যোগাযোগ নেই। শ্বশুর বাড়িতে গেলেও শ্বশুর-শাশুড়ি মেনে নেয়নি। তারা খারার আচরণও করেছে। সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) থেকে অনার্স তৃতীয় বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষা। শরীরও ভালো না। কি করব বুঝে উঠতে পারছি না। কোনো উপায় না পেয়ে অনাগত সন্তান, স্বামী-সংসারের স্বীকৃতির দাবিতে গত ২০ আগষ্ট নাদিরা ভদ্রবিলা ইউনিয়ন পরিষদে একটি লিখিত অভিযোগ করেছি। সেখান থেকেও কোনো রেজাল্ট পাইনি। কোনো মিমাংসা না হলে ঘর-সংসার ও সন্তানের পিতৃত্বের দাবিতে আদালতের সরনাপন্ন হওয়া ছাড়া কোনো উপায় থাকবে না। ভদ্রবিলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শহিদুর রহমানের সাথে ফোনে যোগাযোগ করে পাওয়া যায়নি। তবে এ ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড মেম্বর কাজী নাজমুল বলেন, নাদিরার অভিযোগ পেয়ে রিয়াজের বাড়ি গিয়ে তাকে পাওয়া যায়নি। রিয়াজকে পাওয়া গেলে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার করবেন বলে তিনি জানান। রিয়াজের বাবা সালাম মোল্যা বলেন, ছেলে-মেয়ে যেহেতু নিজেদের মত করে বিয়ে করেছে। সেহেতু আমি এর মধ্যে নেই। ছেলে যদি তার স্ত্রীকে নিয়ে ঘর-সংসার করতে চায় তাহলে আমাদের কোনো আপত্তি নেই। ছেলের সাথে কোনো যোগাযোগ নেই বলে তিনি জানান

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4659957আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 4এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET