২০শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার, ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৩ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

শিরোনামঃ-

নড়াইল এক্সপ্রেস মাশরাফি বিন মর্তুজার প্রিয় পোষাক লুঙ্গি।

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : সেপ্টেম্বর ১৫ ২০১৬, ০০:০৪ | 662 বার পঠিত

marsafi-fhto-14-926উজ্জ্বল রায়, নড়াইল জেলা প্রতিনিধি- নড়াইল এক্সপ্রেস খ্যাত মাশরাফি বিন মর্তুজার প্রিয় পোষাক কি? নড়াইলে বন্ধুদের সাথে নিয়ে মামার বাড়ির সামনে বসে আড্ডায় আড্ডায় কাটে তার অনেক সময়। ছুটির সময়। শরীরের উপরের ভাগে পোষাক বদলাতে পারে। কিন্তু নীচের ভাগের পোষাকটা বদলায় কমই। লুঙ্গি। ঘরেও যেটির জনপ্রিয়তা খুব। হ্যাঁ, আমাদের নড়াইল জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায়ের পাঠানো তথ্যর ভিতিতে জানা জায় এটাই বাংলাদেশের সীমিত ওভারের ক্রিকেট অধিনায়কের প্রিয় পোষাক। আমাদের নড়াইল জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায়ের পাঠানো তথ্যর ভিতিতে জানা জায় একটি সাক্ষাৎকার দিয়েছেন মাশরাফি। ঈদের ছুটি যেখানে প্রথম গুরুত্ব পেয়েছে। সেখানেই মাশরাফি তার পছন্দের পোষাক লুঙ্গির গুণগান করেছেন প্রাণ খুলে। সেই সাক্ষাৎকারের ঈদের প্রসঙ্গটা পাঠকের জন্য তুলে দেওয়া হলো। প্রশ্ন : মাশরাফির ঈদ স্পেশাল কী? মাশরাফি : সবাই মিলে বাড়িতে যাওয়া। আমার কাছে নড়াইল বিশ্বের সেরা জায়গা। ঈদের সময় গেলে আরো ভালো লাগে, সবাই ছুটিতে আসে। তুমুল আড্ডা হয়। আর আমার সৌভাগ্য যে, বাড়িতে গেলে বাচ্চারাও খুব আনন্দ পায়। প্রশ্ন : বাচ্চাদের তো শুধু বাড়িতে যাওয়াই সব আনন্দ নয়, ঈদে নতুন জামাকাপড়ের ব্যাপারও আছে। মাশরাফি : আমার মেয়েটা বড়, তাও পাঁচ বছর। নতুন কাপড়ের মজা বোঝার বয়স বোধ হয় হয় নাই। গ্রামের বাড়িতে যাবে, এতেই মহাখুশি। আসলে বাড়িতে মানুষ বেশি, সামনে মাঠ আছে দৌড়াদৌড়ি করতে পারে। এই খুশিতেই অস্থির! প্রশ্ন : তবু কিছু কেনাকাটা তো করেছেন। মাশরাফি : তা হয়েছে। আব্বা টাকা দিয়েছেন, সেটা দিয়ে সুমি (মিসেস মাশরাফি) শপিং করেছে। আমার নিজের জন্য কিছু কিনেছে কি না, জানি না। প্রশ্ন : বলেন কী? মাশরাফি : কোনোকালেই ঈদ এলেই নতুন কাপড় কিনতে হবে মনে হয়নি। যখন দরকার হয়েছে কিনেছি। আসলে ঈদ বলেই নতুন কাপড় পরতে হবে, আমি ব্যাপারটা এভাবে দেখি না। প্রশ্ন : তাহলে ঈদের দিন আপনি কী পরেন? মাশরাফি : পাঞ্জাবি আর লুঙ্গিতেই আমি কমফোর্টেবল বেশি। এবার অবশ্য এক বন্ধু এক সেট পাজামা-পাঞ্জাবি দিয়েছে। ওকে খুশি করার জন্য একবেলা ওটা পরতে হবে। তবে ভাই, আমার লুঙ্গিই ভালো! প্রশ্ন : ঈদ মানে তো অন্যদের জীবনেও খুশি নিয়ে আসা। আর আপনার দিকে তো অনেকেই তাকিয়ে থাকে। মাশরাফি : এ নিয়মটা কখনো উল্টাপাল্টা হয় না। আমরা দুই ভাইয়ের বাইরেও আম্মার আরো অনেক ছেলেমেয়ে আছে। ওদের জন্য সাত-আট রোজার মধ্যেই কেনাকাটা হয়েছে। আত্মীয়স্বজন, বন্ধুবান্ধবদের জন্যও শপিং হয়েছে। এটা ঠিক যে, ঈদের আসল আনন্দটা এখানেই। নিজের আশেপাশে যারা আছে, সবাইকে নিয়ে হাসিখুশি একটা দিন মানেই আমার কাছে ঈদ। শুধু আমি কেন, আমার তো মনে হয় সবার জন্যই ঈদটা এমন। প্রশ্ন : কিন্তু বাড়ির উদ্দেশে যাত্রাটা কি আপনার জন্য আগের মতো সুখময় আছে? বিশেষ করে বিমানযাত্রার অংশটা যদি বলি। যত দূর জানি, বিমানে চড়তে ইদানীং আপনি খুবই ভয় পান। যে কারণে বিপিএলে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকায় পুরো দল বিমানে এলেও আপনি ঢাকায় ফিরেছিলেন গাড়ি ভাড়া করে। মাশরাফি : (হাসি) ভয় তো এখনো পাই। কিন্তু কী করব, নড়াইলে যাওয়ার সহজতম উপায় বিমানে যশোরে যাওয়া। টিকিটও কেটেছি। কিন্তু আমার মনে হয় ওই বিমানে চড়ার সৌভাগ্য হবে না। পর্যাপ্ত টিকিট পাই না যে! প্রশ্ন : মানে? মাশরাফি : আমার দরকার সাত-আটটা টিকিট। কিন্তু পেয়েছি মোটে চারটা। খুঁজছি যদি আরো তিন-চারটা পাওয়া যায় কি না। না পেলে আমাকে গাড়িতেই যেতে হবে। দুই বাচ্চা, তাদের মা এবং কাজের মেয়েটাকেও বিমানে পাঠিয়ে দেব। আমার ভাই এবং বাকিরা সে ক্ষেত্রে গাড়িতে যাব।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4756762আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 14এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET