২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার, ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১২ই রজব, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • বিশেষ প্রতিবেদন
  • নড়াইল সড়ক ও জনপথ বিভাগের কতৃপক্ষের যোগসাজসে রাস্তায় নিম্নমানের কাজের ফলে ছয়মাস যেতেনা যেতে চলাচল উপযোগী অধিকাংশ সড়কেরই বেহাল অবস্থা,জনদূর্ভোগ

নড়াইল সড়ক ও জনপথ বিভাগের কতৃপক্ষের যোগসাজসে রাস্তায় নিম্নমানের কাজের ফলে ছয়মাস যেতেনা যেতে চলাচল উপযোগী অধিকাংশ সড়কেরই বেহাল অবস্থা,জনদূর্ভোগ

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : অক্টোবর ০২ ২০১৬, ১৫:৪৬ | 642 বার পঠিত

narail-road-pic-01-21016উজ্জ্বল রায়, নড়াইল জেলা প্রতিনিধি –

নড়াইলে সড়ক বিভাগের অধীন অধিকাংশ সড়কেরই বেহাল অবস্থা হয়ে পড়েছে। দীর্ঘদিন সংস্কারের অভাবে দু’একটি বাদে প্রায় সব সড়কই চলাচলের অনুপোযোগী হয়ে পড়েছে। কতৃপক্ষের গাফিলতিতে নীম্নমানের কাজের ফলে, সংস্কার সম্পন্ন হয়েছে এমন সড়কেও চলাচল দুরহ হয়ে পড়েছে ছয়মাস যেতে না যেতেই। এসব সড়ক চলাচল উপযোগী রাখতে প্রতিনিয়তই চলছে অস্থায়ী মেরামত। অত্যন্ত ক্ষণস্থায়ী এ মেরাতম কাজে অর্থের অপচয় ছাড়া কাজের কাজ কিছুই হচ্ছেনা বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। আমাদের নড়াইল জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায়ের পাঠানো তথ্যর ভিতিতে জানা যায় নড়াইল সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের অধিনে ১৭০ কিলোমিটার সড়ক-মহাসড়ক রয়েছে। এর মধ্যে কে জাতীয় মহাসড়ক এবং নড়াইল-মাগুরা সড়কের ১৬ দশমিক ৫০ কিলোমিটার আঞ্চলিক মহাসড়ক রয়েছে। অন্য ৭টি সড়ক রয়েছে জেলা পর্যায়ের সড়ক। এর মধ্যে নড়াইল-লোহাগড়া-কালনা, লোহাগড়া-নড়াগাতি সড়ক, নড়াইল-নওয়াপাড়া সড়ক, নড়াইল-তুলারামপুর-মাইজপাড়া সড়ক, কালিয়া-বড়নাল-তেরখাদা সড়ক রয়েছে। বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, নড়াইল সড়ক বিভাগের মোট ১৭০ কিলোমিটার রাস্তার মধ্যে ১২০-১২৫ কিঃ মিঃ রাস্তাই যানবাহন চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। বেশির ভাগ সড়ক-মহাসড়কগুলো ভেঙ্গে খানাখন্দক এবং বড় বড় গর্ত হয়েছে। চলাচলের অযোগ্য এ সকল রাস্তায় জিবনের ঝুকি নিয়ে চলাচল করায় প্রতিনিয়ত ঘটছে দূরঘটনা। বেশির ভাগ সড়ক বছরের পর বছর সংস্কার এবং মেরামত না করায় বর্তমানে বেশির ভাগ সড়কে যাত্রীবাহী বাসসহ অন্যান্য যানবাহন চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন বঞ্চিত নড়াইল জেলায় সড়ক বিভাগের অধীন ১৭০ কিলোমিটার দৈর্ঘের মোট সড়কের সংখ্যা ৯টি। এর মধ্যে দু’টি আন্ত জেলা মহাসড়ক ও ৭টি জেলা সড়ক। প্রতিদিন এসকল সড়ক দিয়ে যাত্রীবাহী বাসসহ হাজার হাজার যানবহন চলাচল করে। চলাচলের উপযুগী হয়ে পড়েছে জেলার অন্যতম ব্যস্ত নড়াইল-ফুলতলা সড়ক, লোহাগড়া-নড়াইল সড়ক, নড়াইল- মাগুড়া, নড়াইল-কালিয়া সড়ক। বিশেষ করে চলাচলের উপযুগী হয়ে পড়েছে জেলার অন্যতম ব্যস্ত নড়াইল-ফুলতলা সড়ক, লোহাগড়া-নড়াইল সড়ক, নড়াইল- মাগুড়া, নড়াইল-কালিয়া সড়ক। এসব সড়কে যানবাহনকে ঝুকি নিয়ে চলাচল করতে গিয়ে প্রায়ই ছোটবড় দূর্ঘটনার কবলে পড়তে হচ্ছে । রাস্তার সবচেয়ে ভয়াবহ অবস্থা নড়াইল শহর (রুপগঞ্জ) থেকে কালনা ঘাট পর্যন্ত ২৪ কিলোমিটার। এই রাস্তার প্রায় প্রতি অংশে রাস্তা উঠে ভীতরের লাল ইট বের হয়েছে, মাঝে মধ্যে তৈরী হয়েছে গর্ত। বৃষ্টির পানি সেবব গর্তে জমে থেকে সড়কটিকে আরো ঝুকিপূর্ন করে তুলছে। সড়ক বিভাগ নামকাওয়াস্তে প্রতিনিয়ত সংস্কারের কাজ চালালে ও তাতে কোন কাজ হচ্ছে না। বেনাপোল থেকে এই রাস্তায় ঢাকার দূরত্ব প্রায় ২’শ কিলোমিটার কম হওয়ায় দিন দিন গুরুত্বপূর্ন হয়ে উঠছে এই সড়ক। প্রতিদিন ঢাকা থেকে দক্ষিনাঞ্চলের বরিশাল, খুলনা,যশোর হয়ে কয়েক’শ পরিবহন, পন্যবাহী ট্রাক, বাস, কাভার্ড ভ্যান এ রাস্তায় চলাচল করে। একদিকে রাস্তার বেহাল দশার কারনে প্রতিদিন সড়কে চলাচলকারী পরিবহনের বিভিন্ন যন্ত্রাংশ যেমন নষ্ট হচ্ছে তেমনি বাড়ছে সড়ক দূর্ঘটনা। বাস চালকরা জানান, দীর্ঘদিন সংস্কারের অভাবে নড়াইলে অধিকাংশ সড়কেই বেহাল অবস্থা বিরাজ করছে। সড়কের উপরিভাগের কার্পেটিং উঠে গিয়ে খোয়া বেরিয়ে পড়েছে। বিভিন্ন স্থানে সৃষ্টি হয়েছে বড় বড় গর্তের । এসকল রাস্তা দিয়ে গাড়ি চালালে অল্পদিনে গাড়ির বিভিন্ন যন্ত্র নষ্ট হয়ে যায়। কাদা পানির মধ্যে গাড়ি চালালে ব্রেক চাপলে ব্রেকে কাজ করেনা। অনেক ঝুকি নিয়ে জিবন বাজি রেখে গাড়ি চালাতে হচ্ছে। ইতি পুর্বে ভাঙ্গাচুরা সড়ক সংস্কারের দাবিতে যশোর-নড়াইল-কালনা, নড়াইল-ফুলতলা, নড়াইল-ঢাকা মহাসড়কের একাধিক বার সড়ক অবরোধ করেছে এলাকাবাসী। এদিকে, সংস্কার সম্পন্ন হয়েছে এমন সড়কও কতৃপক্ষের যোগসাজসে নিম্নমানের কাজের ফলে ছয়মাস যেতেনা যেতেই পূর্বের অবস্থা ফিরে পেতে বসেছে বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ। এসব সড়কে জান চলাচল কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে। কিছু কিছু সড়কে চলাচল সাভাবিক রাখতে রাখতে কতৃপক্ষ জরুরি অস্থায়ী মেরাতম কাজ অব্যাহত রেখেছে। তবে এ জাতীয় কাজের স্থায়ীত্ব নিয়ে যদিও জনমনে ব্যাপক প্রশ্ন রয়েছে। খুলনা বিভাগ বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন কার্যকরী সভাপতি ছাদেক আহম্মেদ খান নড়াইল জেলা অনলাইন মিডিয়া ক্লাবের সভাপতি উজ্জ্বল রায়কে জানান, জেলার সকল রুটে যাত্রীবাহী বাস, পণ্যবাহী ট্রাকসহ সকল প্রকার যন চলাচলের চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। চরম ভোগান্তি শিকার হচ্ছেন যাত্রী সাধারণ যাত্রী ও চালকদের। এতে সময় ও জ্বালানি তেলের অপচয় হচ্ছে। বাড়ছে দুর্ঘটনার আশংকা। নষ্ট হচ্ছে গাড়ির যন্ত্রাংশ। প্রতিনিয়িত ঝুঁকির মধ্যে যাত্রীসাধারণকে যাতায়াত করতে হচ্ছে। সড়ক সংস্কার ও মেরামতের দাবি জানিয়ে আমরা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনসহ বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের পক্ষ থেকে একাধিক বার সড়ক বিভাগের কাছে অনুরোধ জানিয়েছি কিন্তু কোন লাভ হয়নি। এরকম অবস্থা থাকলে আমরা গাড়ি চালানো বন্ধ করে সড়ক মেরামতের দাবীতে আন্দলনে নামতে বাদ্ধ হব। বর্তমানে সড়ক বিভাগের সব রাস্তা চলাচলের উপযোগী রয়েছে দাবি করে নড়াইল সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী তাপসী দাশ জানান, বরাদ্দ স্বল্পতায় প্রয়োজন অনুযায়ী সড়কের সংস্কার কাজ করা সম্ভব হচ্ছেনা। ২০১৪/১৫ অর্থবছরে নড়াইল সড়ক বিভাগের অধীন ৩ কোটি টাকা ব্যয়ে বিভিন্ন রাস্তা সংস্কার কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4385394আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 2এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET