১লা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার, ১৭ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২১শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনামঃ-

পাখিদের কেন দাঁত নেই?

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : এপ্রিল ১৯ ২০১৬, ১৭:৫৭ | 668 বার পঠিত

নিউজ ডেস্ক : এটা প্রকৃতির রহস্য। পাখিদের কেন দাঁত নেই। এ নিয়ে গবেষণাও কম হয়নি। তবে উত্তর খুঁজতে খুঁজতে অনেক গবেষকেরই দাঁত পড়ে গেছে, তবুও রহস্যভেদ হয়নি। অবেশেষে রহস্য থেকে বেড়িয়ে এল বৈজ্ঞানিক সত্য।
bird
প্রাচীন পাখি আর্কিওপটেরিক্স এর এক সময়ে দাঁত ছিল। কিন্তু তাহলে বর্তমান সময়ের পাখিদের দাঁত নেই কেন? নতুন এক গবেষণা বলছে, মোটামুটি ১১৬ মিলিয়ন বছর আগে পাখিরা হারিয়ে ফেলে তাদের দাঁত।

১৮৬১ সালে আর্কিওপটেরিক্সের ফসিল আবিষ্কৃত হবার পর দেখা যায় তার এক সময়ে দাঁত ছিলো। কিন্তু এই দাঁত একটা সময়ে হারিয়ে যায়। এখন আমরা যত পাখি দেখি, ধারণা করা হয় তাদের পূর্বপুরুষ ছিলো একই। সেই পূর্বপুরুষ তার দাঁত তৈরি করার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলে।

এই গবেষণার জন্য ৪৮টি পাখি প্রজাতির জিন নিয়ে গবেষণা করা হয়। মূলত দাঁত তৈরি করার ছয়টি জিনের ওপরে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়। দেখা যায়, এই সব পাখিতে একই ধরণের মিউটেশন ঘটে, যার কারণে দাতের এনামেল এবং ডেন্টিন তৈরির জিন অকার্যকর হয়ে যায়।

এই মিউটেশনের ওপর ভিত্তি করে ধারণা করা হচ্ছে, আজ থেকে মোটামুটি ১১৬ বছর আগে পাখিদের সেই পূর্বপুরুষ তার দাতের এনামেল ক্যাপ হারিয়ে ফেলে, আর সেই সময়েই পাখির শক্ত ঠোঁট দেখা দেয়।

এই মিউটেশন থেকে একটা সময়ে পাখিদের ঠোঁট তৈরি হয় যাতে দাতের প্রয়োজন মিটে যায়। তবে পাখিদেরই যে শুধু দাঁত নেই তা নয়। বর্তমান সময়ের কচ্ছপ এবং প্যাঙ্গোলিন নামের প্রাণীদেরও যেহেতু দাঁত দেখা যায় না, সে কারণে এদেরও জিন নিয়ে গবেষণা করা হয় এবং একই ধরণের ফলাফল পাওয়া যায়। দাঁতের জন্য দায়ী জিনগুলো একটা সময়ে অকার্যকর হয়ে যায় এক ধরণের মিউটেশনের ফলে।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4659681আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 3এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET