২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৩ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • দেশজুড়ে
  • প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে স্কুলের জানালা আত্মসাতের অভিযোগ, তদন্ত দাবি 




প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে স্কুলের জানালা আত্মসাতের অভিযোগ, তদন্ত দাবি 

কামরুজ্জামান শিমুল, বাগেরহাট জেলা করেসপন্ডেন্ট।

আপডেট টাইম : মার্চ ২৩ ২০২৪, ১৮:৫৮ | 636 বার পঠিত | প্রিন্ট / ইপেপার প্রিন্ট / ইপেপার

বাগেরহাট জেলা সদরের মগরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পুরাতন ভবনে লোহার তৈরি দুইটি জানালা আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সাবেক ও বর্তমান প্রধান শিক্ষক মিলে ৪৫ হাজার টাকা মূল্য মানের দুটি জানালা আত্মসাৎ করেছে বলে অভিযোগ করেছেন বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ, স্থানীয় ইউপি সদস্য এবং অভিভাবকবৃন্দ। বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের অনুমতি ব্যতিরেকে, কোন প্রকার রেজুলেশন কিংবা স্থানীয় ইউপি সদস্যদের না জানিয়ে শুক্রবার বন্ধের দিনে বিদ্যালয়ের পুরাতন ভবন ভেঙে প্রধান শিক্ষক জেসমিনা পারভিন এবং সাবেক প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুস সত্তার জানালা দুটি আত্মসাত করেছেন এমন অভিযোগের সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি করেছেন তারা। এই ঘটনায় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাগেরহাট সদর মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন বলে জানা গেছে।
প্রধান শিক্ষক জেসমিনা পারভীন এবং সাবেক প্রধান শিক্ষক মো.আব্দুস সত্তার বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের অনুমতি কিংবা কোন প্রকার রেজুলেশন ছাড়া সাপ্তাহিক ছুটির দিনে (শুক্রবার) বিদ্যালয়ের পুরাতন ভবনের দুইটি জানালা খুলে পার্শ্ববর্তী হাবিবুর রহমান খোকনের বাড়িতে রাখেন। শনিবারে ভোরে জানা যায় জানালা দুটি চুরি হয়ে গেছে।
বিষয়টি জানতে সাবেক প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুস সাত্তারের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, এ.টি.ও মজিবুর রহমান ও প্রধান শিক্ষক জেসমিনা পারভীনের মৌখিক অনুমতিতে ১৫ মার্চ শুক্রবার শ্রমিক নিয়ে বিদ্যালয়ের পুরাতন ভবনটি ভেঙে জানালা দুটি পার্শ্ববর্তী খোকন শেখের বাড়িতে রাখি। ভোরে শুনতে পাই জানালা দুটি চুরি হয়ে গেছে। তৎক্ষণাৎ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এবং এ.টি.ও মজিবুর রহমানকে চুরির বিষয়টি জানিয়েছি।
স্থানীয় ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর হোসেন লিটন বলেন, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি রয়েছে, আমি রয়েছি, স্থানীয় অভিভাবক বৃন্দ রয়েছে কাউকে কিছু না জানিয়ে বিনা রেজুলেশনে কিভাবে তারা এ কাজ করলো আমি বুঝতে পারছি না। জানালা দুটির বর্তমান বাজার অনুযায়ী মূল্য প্রায় ৪৫ হাজার টাকা। শিক্ষকদের বিরুদ্ধে পূর্বেও অনেক অভিযোগ রয়েছে।চুরির বিষয় নয় ঘটনা তদন্ত হওয়া উচিত।
ঘটনার বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জেসমিনা পারভিন বলেন, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও স্থানীয় ইউপি সদস্যদের বিষয়টি জানানো হয়নি এটা সত্য। বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুস সাত্তারকে দিয়ে শ্রমিক নিয়ে ভবন ভেঙ্গে বিদ্যালয় সংলগ্ন খোকন শেখ এর বাড়িতে জানালা দুটি রাখা হয়েছিল। ভোরে ফোন করে সত্তার সাহেব আমাকে জানান, রাতের আঁধারে কে বা কারা জানালা দুটি চুরি করে নিয়ে গেছে। আমি সকালে এসে বিষয়টি শুনে স্থানীয় থানায় অভিযোগ দায়ের করেছি।
বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি বিপ্লব কুমার পাল বলেন, বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি রয়েছে, প্রধান শিক্ষক ও সাবেক প্রধান শিক্ষক দুজনে মিলে ম্যানেজিং কমিটিকে না জানিয়ে বিনা রেজুলেশনে উদ্দেশ্য মূলকভাবে এই কাজ করেছে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে পূর্বেও বিদ্যালয়ের মালামাল চুরির অভিযোগ রয়েছে। তারা ইচ্ছামতো কাজ করে। এদের বিচার হওয়া উচিত।
এ.টি.ও মজিবুর রহমান বলেন, প্রধান শিক্ষক জেসমিনা পারভীন এবং সাবেক প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুস সাত্তারকে সকলের সাথে পরামর্শ করে পুরাতন ভবনটি অপসারণ করতে বলেছি।  তারা কাউকে বলেছে কিনা আমি জানিনা। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ রুহুল কুদ্দুস তালুকদার বলেন, দুটি জানালা চুরি হওয়ার বিষয়ে আমি শুনেছি। এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছে। থানা পুলিশ তদন্ত করছে আমরাও তদন্ত করছি। দায়ী ব্যক্তিদের কঠিন শাস্তির আওতায় আনা হবে।
Please follow and like us:

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৬০১৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET