১০ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ২৭শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৭শে রমজান, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • অপরাধ দূনীর্তি
  • বিরলে বিজোড়া ইউ,পি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে রাস্তার পার্শের সরকারি গাছ কর্তনের অভিযোগ

বিরলে বিজোড়া ইউ,পি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে রাস্তার পার্শের সরকারি গাছ কর্তনের অভিযোগ

সাদেকুল ইসলাম সুবেল, বিরল,দিনাজপুর করেসপন্ডেন্ট

আপডেট টাইম : এপ্রিল ১৮ ২০২১, ১৩:৫১ | 636 বার পঠিত

 

 

দিনাজপুরের বিরল উপজেলাধীন ৭নম্বর বিজোড়া ইউনিয়নে সরকারি রাস্তার গাছ কর্তনের অভিযোগ উঠেছে।

৭নম্বর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আমজাদ হোসেন এর বিরুদ্ধে। ঘটনাটি বিরল উপজেলাধীন বিজোড়া ইউনিয়নের চৌমুনী বাজার হতে দাশপাড়া বাজার ও বিজোড়া ইস্কুল এন্ড কলেজ যাবার প্রধান পাকা সড়কের মাঝরোডে ভগবতীপুর গ্রামের সামনের রাস্তার দুই পার্শের বিশাল বড় বড় ৭-৮ টি শিশু কাটের গাছ কাটার ঘটনা ঘটেছে।

 

শনিবার (১৭ এপ্রিল ) দুপুর ৩.০০টায় ওই গ্রামবাসীর এক অভিযোগের প্রেক্ষিতে সরেজমিনে ঘটনা স্থলে গিয়ে স্থানীয়দের সাথে কথা হলে তারা জানান, আজ দুপুরের পর থেকে

ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন এর নির্দেশে একই ইউনিয়ন এর বেনীপুরের বাসিন্দা কাট ব্যবসায়ী আফজাল হোসেন(৪০) পিতা- মৃত এর ৪/৫ জন লোক এসে সরকারি রাস্তার ধারে থাকা শিশু গাছ নিম গাছ সহ মোট ৭/৮ টি বড় বড় গাছ অবৈধ ভাবে কর্তন করে।

 

এসময় সচেতন গ্রামবাসীর বাধা নিষেধ উপেক্ষা করে গাছ কর্তন অব্যাহত রাখেন তারা।  বিষয়টি গ্রামবাসীরা তৎক্ষনাত স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আমজাদ হোসেন  কে অবগত করলে তিনি গ্রামবাসীকে উক্ত সকল গাছের বিক্রির টাকা ভগবতীপুর গ্রামের মসজিদ উন্নয়নের জন্য দিবেন বলে জানান।

 

ঘটনাস্থলে সাংবাদিক উপস্থিত হয়ে তথ্য সংগ্রহ করছে এ সংবাদ চেয়ারম্যান জানতে পেরে ঘটনা স্থল হতে কিছু গাছ জব্দ করে বিজোড়া ইউনিয়ন পরিষদে রাখা হয়। বাঁকি গাছগুলো স্থানীয় বাজরে বিজোড়া ইউনিয়নের বেনীপুর গ্রামের কাঠ ব্যবসায়ী আফজাল হোসেন এর কাছে বিক্রি করা হয়েছে বলে দাবী করেন গ্রামবাসীরা।

 

এ বিষয়ে কাঠ ব্যবসায়ী আফজাল হোসেনের সাথে কথা বললে তিনি সাংবাদিককে জানান আমি ৩টি কাছ ৬০,০০০/- টাকায় চেয়ারম্যান এর কাছে নগত অর্থে কিনে নিয়েছি আর বাকি ২টি গাছ চেয়ারম্যান তার ব্যাক্তিগত ব্যবহারের জিনিষপত্র বানানোর জন্য মিলে ফাড়িয়েছেন।

 

এব্যাপারে বিজোড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান  ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আমজাদ হোসেনের সাথে কথা হলে তিনি জানান, সরকারি রাস্তার ৫টি শুকনা গাছ কর্তন করা হয়েছিলো। যা কোন কাজে লাগবেনা, আর আমি এ গাছের টাকা মসজিদে দান করেছি। আর ২টি গাছ ইউনিয়ন পরিষদে জমা রাখা হয়েছে। আমার জানামতে আর কোন গাছ কাটা হয়নি। এ বিষয়ে ঘটনাস্থলের ৮নং ওয়ার্ড এর ইউ,পি সদস্য (মেম্বার) মিলন হোসেন এর সাথে কথা বলার জন্য তার মুঠো ফোনে কল দিলে তার ফোন বন্দ থাকায় তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

 

এ বিষয়ে বিজোড়া ইউনিয়নের ভগবতীপুর গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা মোঃ শাহীনুর রহমাস  পিতা- আকবর আলী ঘটনাস্থলে সাংবাদিককে জানান- চেয়ারম্যান অত্র ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এ পদবির দাপট দেখিয়ে চেয়ারম্যানের নির্দেশে অত্র ইউনিয়নের বিভিন্ন পার্শের রাস্তার ধারের গাছ কিছুদিন পর পরেই কাটা হয় গাছ কাটার কারন জানতে চাইলে সরাসরি বলে চেয়ারম্যানের নির্দেশে গাছ কাটা হচ্ছে।

 

নাম না প্রকাশ করার শর্তে এলাকাবাসীর অনেকে অভিযোগ করে বলেন গোটা বিজোড়া ইউনিয়নের রাস্তার দু পার্শের গাছ বর্তমান চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেনের প্রায় ৮বছর কার্যকালে বড় বড় আকারের প্রায় সব গাছ কেটে ফেলেছে।  এলাকাবাসীর দাবী গাছ গুলো সরকারি সম্পদ ও পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় ও প্রয়োজনীয় তাই আমরা সাধারণ মানুষ এর বাধা দিলে তা মানেনা তাই আমরা এর বিচার চাই এবং সরকারি গাছ কাটা বন্দ হোক এটা আমাদের দাবী ।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4521236আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 3এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET