১৬ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার, ৩১শে আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৯ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • বিশেষ প্রতিবেদন
  • বেলকুচিতে ক্লিনিকের চিকিৎসকের ভুল চিকিৎসার কারণে-দরিদ্র মনিরুল বিনা চিকিৎসায় এখন মৃত্যুর প্রহর গুনছে

বেলকুচিতে ক্লিনিকের চিকিৎসকের ভুল চিকিৎসার কারণে-দরিদ্র মনিরুল বিনা চিকিৎসায় এখন মৃত্যুর প্রহর গুনছে

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : আগস্ট ১৪ ২০১৬, ১৯:১৩ | 672 বার পঠিত

নজরুল ইসলাম, বেলকু‌চি প্র‌তি‌নি‌ধি: ‌সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে একটি ক্লিনিকের চিকিৎসকের ভুল চিকিৎসার কারণে দরিদ্র রাজমিস্ত্রি মনিরুল ইসলাম (১৮) বিনা চিকিৎসায় এখন মৃত্যুর প্রহর গুনছে। সে উপজেলার ধুকুরিয়াবেড়ার মৃত শামছুল হকের ছেলে। মনিরুল খাওয়া-দাওয়া করতে পারছে না। কঙ্কাল হাড্ডিসার শরীরের খোলা পেট দিয়ে বেরিয়ে আসছে মল। ঘটনার তদন্তে কমিটি করেছে সিরাজগঞ্জ সিভিল সার্জন অফিস। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ৭ ভাই-বোনের মধ্যে পেশায় রাজমিস্ত্রী মনিরুল ইসলাম ৬ষ্ঠ। চলতি বছরের ২রা জুলাই হঠাৎ মনিরুলের পেটে প্রচণ্ড ব্যথা অনুভব হলে তাকে বেলকুচি উপজেলার শেরনগরে অবস্থিত বেসরকারি বিস্‌মিল্লাহ্‌ আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে পরিক্ষা-নিরীক্ষা শেষে স্বজনদের জানানো হয় মনিরুলের অ্যাপেন্ডিসাইটিস হয়েছে। এরপর সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতাল থেকে চাকরিচ্যুত ডা. ইমাম আল নাজিমুল হক বিপ্লব, মালিক আবদুর রহমান ও ম্যানেজার ঝর্ণা খাতুন তার অপারেশন করে। নাড়ি ফুটো হওয়ার কারণে অপারেশনের পরই পুরো তার পেটজুড়ে জিবাণুু ছড়িয়ে পড়ে। এরপর তাকে ওই হাসপাতালে রাখার পর কৌশলে ছাড়পত্র দিয়ে মনিরুলকে ১২ই জুলাই বাড়ি পাঠিয়ে দেয়া হয়। ছাড়পত্রে উল্লেখ করা হয়, সার্জন হিসেবে ছিলেন ডা. নাজিমুল হক বিপ্লব, অজ্ঞানবিদ ছিলেন ডা. এমএ রশিদ। আসলে ডা. এমএ রশিদ নামে কোনো অজ্ঞান ডাক্তার সিরাজগঞ্জ জেলাতেই নেই। অভিযোগ রয়েছে ও হাসপাতালের মালিকই অজ্ঞানবিদ হিসেবে দায়িত্ব পালন করে থাকেন। বাড়িতে থাকা অবস্থায় মনিরুলের অবস্থার অবনতি হলে প্রথমে মনিরুলকে সিরাজগঞ্জ শহরের মেডিনোভা হাসপাতাল ও পরে তাকে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে ভুল অপারেশনের শিকার মনিরুলকে কয়েকদিন রেখে জটিলতা এড়াতে চিকিৎসকরা তাকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেন। বর্তমানে সে বিনা চিকিৎসায় নিজ বাড়িতে মৃত্যুর প্রহর গুনছে। সরজ‌মি‌নে মনিরুলের বাড়িতে গেলে বাঁচার আকুতি জানিয়ে মনিরুল বলে, ভুল অপারেশন করে বিস্‌মিল্লাহ্‌ হাসপাতালের লোকজন আমাকে ভুল চিকিৎসা করে মৃত্যুর দিকে ঢেলে দিয়েছে। আমি মরতে চাই না, বাঁচতে চাই। আর অভিযুক্তদের শাস্তি চাই। শয্যাশায়ী মনিরুলের শোকে মা ছকিনা খাতুন অনেকটাই নির্বাক। তসবিহ পাঠ করে তার দিন কাটছে। বড়ভাই নুরুজ্জামান সরকার জানান, অসুস্থ ভাইটাকে ওই নরপিচাশরা চিকিৎসার নামে তাকে যে মৃত্যুর দ্বারপ্রান্তে নিয়ে যাবে তা কখন কল্পনাও করিনি। অর্থাভাবে এখন তার চিকিৎসাও করাতে পারছি না। এ ঘটনায় সিভিল সার্জন অফিস ও বেলকুচি থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। আমরা অভিযুক্ত চিকিৎসকদের শাস্তি চাই। স্থানীয় ইউপি সদস্য মন্টু সরকার জানান, হাসপাতালে রোগীকে সুস্থ করার জন্য নেয়া হয়েছিল। অথচ তাদের ভুল চিকিৎসায় মনিরুল আজ মৃত্যু পথযাত্রী। ওই হাসপাতাল সিলগালা ও চিকিৎসকদের শাস্তি দাবি করেন তিনি। এ বিষয়ে বিস্‌মিল্লাহ্‌ আধুনিক হাসপাতালের পরিচালক আবদুুর রহমান জানান, হাসপাতালকে নিয়ে অনেকে ষড়যন্ত্র করছে। তদন্ত কমিটির কাছে আমি অভিযোগের ব্যাখ্যা দিয়েছি। কেউ হাসপাতালের কিছু করতে পারবে না। এদিকে, হাসপাতালটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিয়েছেন বেলকুচি উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাইফুল হাসান। আর সিরাজগঞ্জ সিভিল সার্জন ডা. শেখ মো. মঞ্জুর রহমান জানান, বিষয়টির তদন্তে গঠিত কমিটি প্রতিবেদন জমা দিয়েছিল। কিন্তু প্রতিবেদন গঠনমূলক না হওয়ায় পুনরায় তদন্ত করে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে তদন্ত কমিটিকে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4751529আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 8এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET