১লা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ১৬ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৬ই রজব, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনামঃ-

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মেঘনার ভাঙনে বিলীনের পথে চরলাপাং গ্রাম

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : মে ৩১ ২০১৬, ০৪:১৫ | 695 বার পঠিত

13327476_240159803026142_5570809083399889902_nআজম রাজু- অব্যাহত নদী ভাঙন ও ড্রেজারের মাধ্যমে অবৈধভাবে বালু তোলায় অচিরেই বিলীন হয়ে যেতে পারে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার পশ্চিম ইউনিয়নের মেঘনা তীরবর্তী চরলাপাং গ্রাম।

এনিয়ে গ্রামটির দেড় হাজারেরও বেশি পরিবারে আতঙ্ক বিরাজ করছে।
স্থানীয়রা জানায়, গ্রামের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মাদ্রাসা, ডাকঘর, কমিউনিটি ক্লিনিক, বাজার, গোরস্থান ও ঈদগাঁ মাঠ যেকোনো মুহূর্তে নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যেতে পারে।জানা যায়, পার্শ্ববর্তী জেলা নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার উজ্জ্বল মিয়াসহ বেশ কয়েকজন বালু ব্যবসায়ী দীর্ঘদিন ধরে চরলাপাং গ্রাম সংলগ্ন দক্ষিণাংশ থেকে অবৈধভাবে বালু তুলছেন। এতে ভয়াবহ ভাঙনের কবলে পড়েছে মেঘনার তীর।
স্থানীয় উপজেলা প্রশাসন একাধিকবার বালু উত্তোলনকারীদের বাধা দিলেও তারা কর্ণপাত করেননি। এ অবস্থায় চরলাপাং গ্রামবাসী সংবাদ সম্মেলন করে এর প্রতিবাদ জানানোর পাশাপাশি বালু উত্তোলন বন্ধে প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপ দাবি করেছেন।
সম্প্রতি নবীনগর প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে চরলাপাং গ্রামবাসীর পক্ষে নিয়াজ উল্লাহ, আবুল কাশেম, আব্দুর রহিম ও ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য নুরুল ইসলাম অভিযোগ করেন, গ্রামটির বেশিরভাগ অংশ এরই মধ্যে নদীগর্ভে চলে গেছে। অব্যাহত বালু তোলার কারণে ভাঙনের আওতা দিন দিন বাড়ছে।
তারা জানান, গ্রামের যে অংশ এখনও ভাঙেনি তা রক্ষা করতে হলে উপজেলা প্রশাসনকে কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে হবে। নইলে ভাঙন থেকে রক্ষা পাবে না চরলাপাং গ্রামবাসী।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে নবীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আজিজুল ইসলাম জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও নরসিংদী জেলার মধ্যে সীমানা নির্ধারণ নিয়ে জটিলতা থাকায় বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া যাচ্ছে না। তবে সম্প্রতি এ জটিলতা নিরসনের জন্য ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদপ্তরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। সীমানা নির্ধারণ করে দিলে নরসিংদীর বালু ব্যবসায়ীরা ঢুকতে পারবেন না।
আসছে শুষ্ক মৌসুমে স্থায়ী সীমানা নির্ধারণের কাজ শুরু করা হবে বলেও জানান তিনি।
এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক ড. মুহাম্মদ মোশাররফ হোসেন জানান, এ নিয়ে এর আগে স্থানীয় সংসদ সদস্যের সঙ্গে কথা হয়েছে। শিগগিরই এ ব্যাপারে কঠোর অভিযানে নামবে প্রশাসন।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4392373আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 4এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET