২৭শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার, ১৩ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৩ই জমাদিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনামঃ-

মেয়র আনিসুলের জাদুর বাক্স

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : এপ্রিল ২৫ ২০১৬, ০০:৩০ | 702 বার পঠিত

টেলিভিশন—মানবসভ্যতার ইতিহাসে সবচেয়ে সেরা আবিষ্কারগুলোর একটি। ১৯২৬ সালে যাত্রা শুরুর পর থেকেই টেলিভিশন সবার দৈনন্দিন বিনোদনের অন্যতম উৎস। সময়ের পরিবর্তনে পরিবর্তন এসেছে টেলিভিশনেও। একে একে এসেছে ডিজিটাল টিভি, এইচডি টিভি। একবিংশ শতাব্দীর শুরুর দিকে সংযোজন হয় স্মার্ট টিভি এবং থ্রিডি টিভির। বিনোদনপ্রেমীরাও সাদরে বরণ করে নিয়েছে নতুন নতুন প্রযুক্তি। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বদলায়নি শুধু টেলিভিশন দেখার গতানুগতিক অভিজ্ঞতা। কারণ টিভি যতই উন্নত হোক, সার্ভিস যদি ডিজিটাল না হয়, তাহলে কখনোই বদলাবে না টিভি দেখার ঝিরঝিরে অভিজ্ঞতা। তাই এবার ২৩০টিরও বেশি চ্যানেলের ঝড় তুলতে এলো জাদুর বাক্স।
anisul
শনিবার রাতে রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরা-নবরাত্রি হল ৪-এ জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের ভেতর দিয়ে হয়ে গেল জাদু ডিজিটালের লঞ্চিং প্রোগ্রাম। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। এ ছাড়া বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক, তথ্যসচিব মর্তুজা আহমেদ প্রমুখ। ডিজি জাদু ব্রডব্যান্ড লিমিটেডের চেয়ারম্যান আনিসুল হকসহ প্রতিষ্ঠানটির এক পরিচালকও উপস্থিত হয়ে বক্তব্য দেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘পৃথিবীতে তথ্যপ্রযুক্তির বিপ্লব চলছে। আমাদের বহু জায়গায় ডিজিটাল কার্যক্রম চালু হয়েছে। এখন সমস্ত সম্প্রচারও ডিজিটাল হতে হবে।’

মন্ত্রী বলেন, ঢাকা ও চট্টগ্রামে বাধ্যতামূলকভাবে এক বছরের জন্য ডিজিটাল বাক্স চালু করা হবে। এতে প্রতি মাসে ৯ কোটি টাকা ও বছরের ১০৮ কোটি টাকা রাজস্ব পাবে সরকার। আগামী এক মাসের মধ্যে অবৈধভাবে চলা ডিটিএইচ বন্ধ করে দেওয়া হবে বলেও জানান তথ্যমন্ত্রী।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক বলেন, ‘এ পদ্ধতির ফলে তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্র থেকে সরকার অনেক রাজস্ব আয় করতে পারবে। ২০২১ সালে এ সেক্টর থেকে পাঁচ বিলিয়ন ডলার আয় করার টার্গেট রয়েছে। আমরা ১২টি আইটি পার্ক স্থাপন করার কাজ করছি। আগামী বাজেটে আইটি যন্ত্রাংশ আমদানি শুল্কমুক্ত রাখতে সরকারের সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানানো হবে।’

ডিজি জাদু ব্রডব্যান্ড লিমিটেডের চেয়ারম্যান আনিসুল হক বলেন, ‘বাংলাদেশ সরকার সব সেক্টরে ডিজিটালের ছোঁয়া দিলেও কেবল ব্যবস্থা রয়েছে সেই আশি দশকের। দেশে ৮০-৯০ ভাগ মানুষের টেলিভিশন থাকলেও এ সেক্টরকে শিল্প ঘোষণা করা হয়নি। ফলে এ ক্ষেত্রে বিনিয়োগকারীরা সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত থেকে যাচ্ছেন। আমরা অবিলম্বে ডিটিএইচ বন্ধের দাবি জানাচ্ছি।’

আয়োজকরা জানান, টিভি দেখার এক্সপেরিয়েন্স বদলে দিতেই এসডি ও এইচডি সেট টপ বক্সসহ ডিজিটাল কেবল সার্ভিস নিয়ে এলো এক জাদুর বাক্স, জাদু ডিজিটাল। হাই ডেফিনিশন প্রিমিয়াম টিভি সার্ভিস এবং ইন্টারনেটভিত্তিক সেবা নিয়ে সারা দেশে ডিজিটাল কেবল সার্ভিসের বিপ্লব ঘটাতে এলো এই জাদুর বাক্স। গ্রাহকদের জন্য যুগান্তকারী বিনোদন এবং কমিউনিকেশন এক্সপেরিয়েন্স নিশ্চিত করাই জাদু ডিজিটালের লক্ষ্য।

জাদু ডিজিটাল গ্রাহকদের জন্য নিয়ে এসেছে এসডি ও এইচডি সেট টপ বক্স, যা এই মুহূর্তে ২৩০টিরও বেশি ডিজিটাল চ্যানেল সরবরাহ করছে। চ্যানেলের সংখ্যা আরো বাড়ানোর জন্য কাজ করা হচ্ছে। জাদু ডিজিটাল গ্রাহকদের জন্য জাদু সেভার, জাদু ভ্যালু, জাদু সুপার এইচডি ও জাদু প্রিমিয়াম এইচডি নামের চারটি ফ্যান্টাস্টিক প্যাকেজ ডিজাইন করেছে। গ্রাহক তার পছন্দমতো প্যাকেজ সাবস্ক্রাইব করে এক্সপেরিয়েন্স করতে পারবেন জাদু। বর্তমান কেবল অপারেটরদের সহযোগিতায় গ্রাহকরা এই সার্ভিস উপভোগ করতে পারবেন। ছবি ও ক্রিস্টাল ক্লিয়ার সাউন্ডে ২৪ ঘণ্টা নিরবচ্ছিন্নভাবে চলবে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বিনোদন। শুধু অসংখ্য চ্যানেলের অভিজ্ঞতাই নয়, জাদুর গ্রাহকরা আরো পাবেন ভিডিও রেকর্ডিং, ভিডিও অন ডিমান্ড, ইলেকট্রনিক প্রোগ্রাম গাইড, হাই-স্পিড ইন্টারনেট ও আইপি টেলিফোনির মতো বিভিন্ন ইন্টারনেটভিত্তিক সার্ভিস এবং ২৪ ঘণ্টা ওয়ার্ল্ড ক্লাস কল সেন্টার সাপোর্ট, যেগুলো বিনোদনকে নিয়ে যাবে এক অন্য উচ্চতায়।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4330374আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 9এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET