২রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ১৮ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২২শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনামঃ-

মেয়র মান্নান ফের গ্রেপ্তার

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : আগস্ট ১৯ ২০১৬, ০৪:৩৭ | 648 বার পঠিত

27810_b4নয়া আলো ডেস্ক- দুদকের মামলায় গাজীপুর সিটি করপোরেশনের (জিসিসি) সাময়িক বরখাস্ত হওয়া মেয়র ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক এমএ মান্নানের জামিন মঞ্জুর হওয়ার দিনই আবারও একটি মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। গাজীপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল  ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে নাশকতার মামলায় শুনানি শেষে এমএ মান্নানকে ওই গ্রেপ্তারের আদেশ দেন আদালত। আরো একটি মামলায় জড়ানোয় অধ্যাপক মান্নানের বিরুদ্ধে ২৬টি মামলা হয়েছে। এর আগ পর্যন্ত তিনি আদালত থেকে ২৫ মামলায় জামিন পেয়েছিলেন। সর্বশেষ দুদকের দায়ের করা মামলায় বুধবার হাইকোর্ট থেকে জামিন পান তিনি। এর পরপরই ওইদিন তাকে আরেকটি মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হলো।
গাজীপুর আদালতের ইন্সপেক্টর রবিউল ইসলাম জানান, বিএনপি-জামায়াতের অবরোধ চলাকালে নাশকতা সৃষ্টির জন্য বাস-ট্রাকে পেট্রলবোমা নিক্ষেপ করে জানমালের ক্ষতিসাধনের জন্য গত বছরের ২৭শে জানুয়ারি বিকালে গাজীপুর মহানগরের ভুরুলিয়া এলাকায় গোপন বৈঠক করছিল জামায়াত-বিএনপির নেতাকর্মীরা। ওই খবরের ভিত্তিতে পুলিশ সেখানে অভিযান চালিয়ে জেলা জামায়াতের আমির আবুল হাশেম ও মহানগর জামায়াতের অর্থবিষয়ক সম্পাদক নাসরুল্লাকে ১০টি পেট্রলবোমাসহ আটক করলেও অন্যরা পালিয়ে যায়। ওই ঘটনায় এসআই মনির হোসেন বাদী হয়ে জামায়াত-বিএনপির ১০ নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত আরো ১০-১৫ জনের বিরুদ্ধে জয়দেবপুর থানায় মামলা করেন। পরে মামলাটির তদন্তকালে ওই ঘটনার সঙ্গে অধ্যাপক এমএ মান্নানের বিরুদ্ধে নাশকতায় জড়িত থাকার তথ্য পাওয়া যায়। এসব তথ্যের ভিত্তিতে তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই জহিরুল ইসলাম ওই মামলায় এমএ মান্নানকে গ্রেপ্তারের জন্য বুধবার গাজীপুরের আদালতে আবেদন করেন। বিকালে শুনানি শেষে আদালতের বিচারক আবদুল হাই ওই আবেদন মঞ্জুর করেন। এর প্রেক্ষিতেই অধ্যাপক মান্নানকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।
অধ্যাপক মান্নানের আইনজীবী মঞ্জুর মোর্শেদ প্রিন্স জানান, সর্বশেষ বুধবার হাইকোর্ট থেকে জয়দেবপুর থানায় দায়ের করা দুদকের একটি মামলায় জামিন লাভ করেন অধ্যাপক এমএ মান্নান। যার ফলে কারাগার থেকে মুক্তি পেতে তার কোনো বাধা ছিল না। এরপর বুধবারই তাকে জয়দেবপুর থানার আরো একটি নাশকতার মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হলো। অধ্যাপক এমএ মান্নান বর্তমানে গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১-এ আছেন। তিনি বিএনপির সদ্য ঘোষিত জাতীয় নির্বাহী কমিটিতে ভাইস চেয়ারম্যান পদে মনোনীত হয়েছেন।
গত বছরের ১১ই ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় রাজধানী ঢাকার বারিধারার ডিওএইচএসের নিজ বাসা থেকে যাত্রীবাহী বাসে পেট্রলবোমা হামলার মামলায় অধ্যাপক এমএ মান্নানকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এর পর একে একে তার নামে মামলার সংখ্যা বাড়তে থাকে। একটি মামলায় তার নামে অভিযোগপত্র আদালতে গ্রহণ হওয়ায় মেয়র পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয় তাকে। এরপর তার অবর্তমানে ৮ই মার্চ থেকে প্যানেল মেয়র আসাদুর রহমান কিরণ গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন শুরু করেন।
মোট ২২টি মামলায় ১৩ মাস কারাগারে থাকার পর চলতি বছরের ২রা মার্চ তিনি জামিনে মুক্তি পান। মুক্তির পর আইনি লড়াইয়ে উচ্চ আদালতের মাধ্যমে মেয়রের পদ ফিরে পাওয়ার সুযোগ সৃষ্টি হওয়ার পর পর নাশকতার মামলা আবারও গ্রেপ্তার হন তিনি। নাশকতার মামলা ছাড়াও এর মাঝে তার নামে দুদুক একটি মামলা দায়ের করে। নাশকতা ও সর্বশেষ দুদুকের মামলায় জামিন হওয়ার পর তার জামিনে মুক্তির সুযোগ হয়। কিন্তু সেদিনই আবারও একটি মামলায় নতুন করে আদালতের মাধ্যমে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4662506আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 19এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET