২৪শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার, ৯ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৩ই জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনামঃ-

রাজশাহীতে বেড়েই চলেছে পদ্মার পানি

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : আগস্ট ২৮ ২০১৬, ১৩:৫২ | 633 বার পঠিত

14172034_332761520400231_1508271989_n14182658_332761523733564_133047401_nতথ্য ও ছবিঃ রাজশাহী থেকে কাওছার-  পদ্মার পানি বাড়াই তলিয়ে গেছে রাজশাহীর বেশ কিছু অঞ্চল। এখন বিপদসীমার ১০ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও ফারাক্কার সব গেট খুলে দেওয়ায় পদ্মার পানি ১০ বছরের রেকর্ড ভাঙেছে। এতে শহররক্ষা বাঁধ নিয়েও দেখা দিয়েছে আতঙ্ক। বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের পানি পরিমাপক শহীদুল ইসলাম জানান, শনিবার (২৭ ) সন্ধ্যা ৬টায় রাজশাহীতে পদ্মা নদীর পানির উচ্চতা ছিলো ১৮ দশমিক ৪০ মিটার। ২৪ ঘণ্টায় পানি বেড়েছে ৯ সেন্টিমিটার। রাজশাহীতে পদ্মার বিপদসীমা ১৮.৫০ মিটার। ফলে রাজশাহীতে পদ্মার পানি শনিবার বিপদসীমার মাত্র ১০ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করে আরো জানান, গত কয়েক দিন থেকে পদ্মায় যে হারে পানি বাড়ছে তাতে আগামীকালের (২৮ আগস্ট) মধ্যে বিপদসীমা অতিক্রম করতে পারে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এর আগে ২০১৩ সালে রাজশাহীতে পদ্মা বিপদসীমা অতিক্রম করে। ওই বছরের ৭ সেপ্টেম্বর রাজশাহীতে পদ্মার সর্বোচ্চ উচ্চতা ছিল ১৮.৭০ মিটার।এরপর ২০১৪ সাল ও ২০১৫ সালে রাজশাহীতে পদ্মা পানি আর বিপদসীমা অতিক্রম করেনি। এদিকে, পানি বৃদ্ধিতে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার পদ্মার তীর থেকে থেকে বাঘা পর্যন্ত পদ্মার উভয় তীরে ও নদীর ভিতরের চরাঞ্চলের বাসা-বাড়িতে নদীর পানি ঢুকেছে। এছাড়া মহানগরীর পুরাতন জিপিও সংলগ্ন আই বাঁধ থেকে তালাইমারি পর্যন্ত শহররক্ষা বাঁধ ঘেঁষেই পদ্মার পানি থৈ থৈ করছে। এসব এলাকায় থাকা নিচু ঘর-বাড়ি ভাসিয়ে নিচ্ছে পদ্মা। চর খিদিরপুর ও নবগঙ্গা এলাকায় ভাঙন অব্যাহত রয়েছে। হরিয়ান ইউনিয়নের মধ্যচরে নতুনভাবে বসতি স্থাপন করা ২৫০টি বাড়িতে হাঁটু পানি উঠে গেছে। মধ্যচরের ওই পরিবারগুলো পানিবন্দি হয়ে চরম দুর্ভোগের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন। তারা গবাদিপশু নিয়ে পড়েছেন বেকায়দায়। বিশুদ্ধ পানি ও গবাদি পশুর খাবার সঙ্কট দেখা দিয়েছে। হরিপুর ইউনিয়নের নবগঙ্গা এলাকায় পানি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভাঙন অব্যাহত রয়েছে। ওই এলাকার মানুষ ভাঙন আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন। পানিবন্দি অবস্থায় গবাদিপশু নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন চর মাজাড়দিয়াড় গ্রামের মানুষও। রাজশাহী পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোখলেসুর রহমান বলেন, যেভাবে পানি বাড়ছে তাতে ১/২ দিনের মধ্যে বিপদসীমা অতিক্রম করতে পারে পদ্মা। তবে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। কারণ শহররক্ষা বাঁধের উচ্চতা আরও ২০মিটার উঁচু। এতে বাঁধ না ভাঙা পর্যন্ত পানি শহরে ঢুকতে পারেবে না। তবে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে শহররক্ষা বাঁধ সংলগ্ন টি-গ্রোয়েন এলাকায় শনিবার সকাল থেকে জনসাধারণের প্রবেশ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। গেটে দেওয়া হয়েছে তালা। এছাড়া বাঁধে পুলিশি পাহারা বাড়ানো হয়েছে। সেখানে ১২ জন পুলিশ সদস্য কর্তব্য পালন করছেন বলেও জানান তিনি।
Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4643790আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 15এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET