২৪শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার, ৯ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৩ই জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • বিশেষ প্রতিবেদন
  • রাজশাহী মহানগরীর বেসরকারী ক্লিনিক সেন্টারগুলোতে অস্বাভাবিক হারে বেড়েছে চিকিৎসক ভিজিট

রাজশাহী মহানগরীর বেসরকারী ক্লিনিক সেন্টারগুলোতে অস্বাভাবিক হারে বেড়েছে চিকিৎসক ভিজিট

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : আগস্ট ২৪ ২০১৬, ২১:২৯ | 754 বার পঠিত

14137812_330832293926487_1779543995_nকাওছার আহম্মেদ, রাজশাহী প্রতিনিধি । রাজশাহী মহানগরীর বেসরকারী ক্লিনিক, ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও কনসালন্টেসন সেন্টারগুলোতে অস্বাভাবিক হারে বেড়েছে চিকিৎসক ভিজিট। চিকিৎসকরা কিছুদিন পর পর নিজেদের ইচ্ছামত চিকিৎসক ভিজিট বাড়িয়ে দিচ্ছেন। আর এতে করে গরীব রোগীদের চিকিৎসা পাওয়া থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। কারণ সর্বনিম্ন ৫০০ টাকা থেকে শুরু ৮০০ টাকা পর্যন্ত চিকিৎসকদের ভিজিট। শুধু তাই নয়। চিকিৎসকদের নির্ধারিত সময়ের পরে আসলে একই রোগীকে ডবল ভিজিট দিতে হয়। যতবার ডাক্তারের সাথে রোগীরা দেখা করবে ততবারই ভিজিট দিতে হবে। ভিজিট না দিলে চিকিৎসকের সাক্ষাৎ পাননা রোগীরা। ফলে এক রোগীকে ৩/৪ বার ভিজিট দিতে হচ্ছে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রাজশাহী মহানগরীতে ছোট-বড় প্রায় শতাধিক ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক এবং কনসালন্টেসন সেন্টার রয়েছে। প্রায় ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে চিকিৎসক রোগী দেখেন। এসব চিকিৎসকদের চেম্বারে দুর-দুরান্ত থেকে রোগীরা চিকিৎসা নিতে আসেন। রাজশাহীর সিনিয়র কয়েকজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের প্রথম ভিজিট ৮০০ টাকা, তারপরের অবস্থানের চিকিৎসকদের প্রথম ভিজিট ৭০০ টাকা, তারপরের অবস্থানের চিকিৎসকদের ৬০০ টাকা, তারপরের অবস্থানের চিকিৎসকদের ৫০০ টাকা এবং ৪০০ টাকা পর্যন্ত ভিজিট রয়েছে। প্রথমে রোগী চিকিৎসা নিয়ে যাওয়ার পনের দিন অথবা এক মাসের মধ্যে আসলে ডাক্তারের সাক্ষাতে ভিজিট দিতে হয়না। কিন্ত এক মাস পরে গেলে আবার ভিজিট দিতে হয়। গরীব রোগীদের ভিজিট দিতে দিতেই হেনস্থা হতে হয়। তবে চিকিৎসকরা পৃথক সময় নির্ধারণ করে থাকেন। যে সময়ের মধ্যে চিকিৎসা নিতে না আসলে পুনরায় ভিজিট দিতে হয়। চিকিৎসক নিজের ইচ্ছামত ভিজিট বাড়িয়ে চললেও কেউ বিষয়টি নিয়ে চিন্তা করেনা। কর্তৃপক্ষও কোন ভূমিকা পালন করেনা। যার কারণে চিকিৎসকরা কিছুদিন পর পর ভিজিট বাড়াচ্ছেন। গত কয়েক বছর আগেও চিকিৎসকের ভিজিট কম ছিল। কিন্ত হঠাৎ করেই চিকিৎসকরা তাদের ভিজিট বাড়িয়ে দি-গুণ করে ফেলেছেন। বাড়তি চিকিৎসক ভিজিট নয় রোগীরা সিরিয়াল নেয়ার পর নিজেদের সিরিয়াল অনুযায়ী চিকিৎসক দেখাতে পারেননা। এর কারণ হচ্ছে চিকিৎসকদের এ্যাটেন্টডেন্টরা বাড়তি ১০০/২০০ টাকা নিয়ে অন্যদের ডাক্তার দেখানোর সুযোগ করে দেয়। এটা রাজশাহীর প্রায় ক্লিনিকের দৃশ্য। বিশেষ করে রাজশাহীর পপুলার ক্লিনিক, সিডিএম, মেডিপ্যাথ, শাপলা, হলিপ্যাথ, মাইক্রোপ্যাথ আমানা ক্লিনিকসহ বিভিন্ন বেসরকারী ক্লিনিকে চিকিৎসকদের বাড়তি ভিজিট দিয়ে রোগীকে ডাক্তার দেখাতে হয়। পপুলার ডায়াগনস্টিকে চিকিৎসা নিতে আসা এক রোগী অভিযোগ করে জানান, আগের দিন তিনি রোগী দেখানোর জন্য সিরিয়াল নিয়েছিলেন। কিন্ত তার পরের সিরিয়ালের লোকজন ডাক্তারের এ্যাটেন্টডেন্সকে টাকা দি॥েয তার সামনে দিয়েই রোগী দেখিয়ে দিচ্ছেন। এখানে টাকা দিলেই রোগী আগে দেখানো যায় বলে তিনি আরো অভিযোগ করেন। শুধু পপুলার নয় নগরীর অন্যান্য ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলোতেও একই চিত্র। তবে কর্তৃপক্ষের মনিটরিং না থাকার কারণে এ ধরণের ঘটনা ঘটছে বলে অভিযোগ রয়েছে। সচেতন মহলের ব্যক্তিরা মন্তব্য করেন, সরকারীভাবে চিকিৎসকদের ভিজিটের বিষয়ে কোন নির্দেশনা না থাকায় চিকিৎসকরা ইচ্ছামত ভিজিট বাড়িয়ে দিচ্ছেন। যার কারণে ভিজিট কিছু দিন পর পর বাড়তেই আছে। এটা নিয়ন্ত্রণে সরকারের হস্তক্ষেপও কামনা করেন তারা।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4643570আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 3এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET