২৮শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার, ১৩ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • জাতীয়-শীর্ষ সংবাদ
  • লিবিয়ায় বাংলাদেশী নার্স খুনের ঘটনায় এক বাংলাদেশী গ্রেফতার, খুনীর শাস্তির দাবিতে সোচ্চার প্রবাসী বাংলাদেশীরা

লিবিয়ায় বাংলাদেশী নার্স খুনের ঘটনায় এক বাংলাদেশী গ্রেফতার, খুনীর শাস্তির দাবিতে সোচ্চার প্রবাসী বাংলাদেশীরা

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : সেপ্টেম্বর ০১ ২০১৬, ১৯:১৩ | 705 বার পঠিত

14182302_1749314142003623_1458530295_nঅর্পন মাহমুদ, লিবিয়া থেকে- লিবিয়ায় হাসপাতাল কোয়ার্টারের নিজ ঘরে বাংলাদেশী নার্স খুনের ঘটনায় অবশেষে শিবলু নামে এক বাংলাদেশীকে গ্রেফতার করেছে লিবিয়ান পুলিশ । পুলিশের প্রাথমিক ধারণা, শিবলু একজন পেশাদার খুনী । খুনি শিবলুর বিচারের দাবিতে এখন সোচ্চার লিবিয়ায় কর্মরত প্রবাসী বাংলাদেশীরা । গত ২৪ আগস্ট মিলন পারভীন নিজ ঘরে খুন হওয়ার পর, কয়েক ঘন্টার মধ্যে সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে খুনীকে সন্দেহ করে পুলিশ । এর ২ দিন পর লিবিয়ায় আদম ব্যাসায়ী ঢাকা মানিকগঞ্জের শিবলুসহ ৩ জনকে আটক করে নিয়ে যায় পুলিশ । আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদে বেরিয়ে আসে খুনের পুরো ঘটনা। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, শিবলু মিলনকে হত্যা করেছে বলে পুলিশের কাছে স্বীকারোক্তি দিয়েছে। ঘটনার বিবরণে শিবলু পুলিশকে জানিয়েছে। লিবিয়ায় কর্মরত নার্স মিলন পারভীনের কাছে স্বর্নালঙ্কারসহ কয়েক বছরের জমানো মোটা অঙ্কের দিনার আছে জানতে পেরে তা লুটে নেয়ার বিভিন্ন কৌশল করতে থাকে সে। এক পর্যায়ে দেশে হুন্ডিতে টাকা দিয়ে, লিবিয়ায় দিনার নেবে বলে মিলন পারভীনকে প্রস্তাব দেয় শিবলু। দীর্ঘদিন দেশে টাকা পাঠাতে না পারা মিলন পারভীন তার প্রস্তাবে রাজি হয়ে যায়। খুনী শিবলু তাকে জানায়, তার লোক ২/১ দিনারে মধ্যেই দেশে টাকা পৌঁছে দেবে। দিনারগুলো বাসাতেই প্রস্তুত রাখতে বলে সে। ঘটনার দিন মিলন পারভীন শিবলুকে ফোন করে জানায়, দিনার রেডি আছে। মিলন শিবলুকে বলে, দেশে টাকা দিলেই দিনারগুলো দিয়ে দেবে সে। ঐ রাতেই শিবলু মিলনের বাসায় যায় এবং যাওয়ার আগে অজ্ঞান করার ওষুধ জুসের সাথে মিশিয়ে নিয়ে যায়। এক পর্যায়ে জুস খাইয়ে মিলন পারভীনকে আজ্ঞান করে দিনারসহ মালামাল লুটে নিয়ে তাকে রুমের মেঝেতে ফেলে চলে আসে খুনী শিবলু। বেড়িয়ে এসে ভাবতে থাকে, মিলন পারভীন জেগে উঠলে সব ফাঁস করে দেবে এবং সে বিপদে পড়বে। এই ভেবে ঐ রাতেই এক লিবিয়ানকে সাথে নিয়ে দোকান থেকে ধারালো ছুরি কিনে নিয়ে সে আবার যায় মিলনের ঘরে। তখনও অচেতন আস্থায় মিলন। সে অবস্থায় তাকে ছুরি দিয়ে গলা কেটে হত্যা করে শিবলু। পরে লাশ গুম করার নানা চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে অবশেষে লাশের যেন দুর্গন্ধ ছড়াতে না পারে সে জন্য এসিতে হাই কোল্ড ছেড়ে দিয়ে এসি’র কাছেই লাশটি রেখে বাহির থেকে দরজা বন্ধ করে বেড়িয়ে আসে খুনী শিবলু। একদিন পর, মিলন পারভীন কাজে না যাওয়ায় এবং তার মোবাইল বন্ধ থাকায় সহকর্মীরা তার বাসায় এসে রক্তাক্ত অবস্থায় তার লাশ পরে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। লাশ উদ্ধার করে খুনীকে ধরতে মাঠে নামে পুলিশ। কোয়ার্টারের সামনেই থাকা সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে সন্দেহ করে শিবলু আর তার স্ত্রীসহ ৩ জনকে আটক করে পুলিশ। স্বীকারোক্তির পর পুলিশ শিবলুকে রেখে বাকিদের ছেড়ে দিয়েছে বলে জানা গেছে। শিবলুর বাড়ি মানিকগঞ্জ জেলায় বলে জানা গেছে। একটি সূত্র জানিয়েছে, শিবলু ১ বছর আগে মিশর থেকে লিবিয়া আসে। লিবিয়ায় এসে হুন্ডি ও আদম ব্যবসা করছিল সে। বেনগাজীতে মনোয়ারা খাতুন নামের এক নার্সকে ১৫ আগস্ট লিবিয়ান ষ্টাইলে ধুমধাম করে বিয়ে করে সে। লিবিয়ানসহ প্রবাসী কয়েক’শ বাংলাদেশীকে অতিথি করা হয় সে অনুষ্ঠানে। এই হত্যাকান্ডের পর হতবাক এখানকার প্রবাসী শ্রমিকরা। পাশাপাশি খুনীর শাস্তির দাবিতে সোচ্চার লিবিয়ায় কর্মরত নার্সসহ প্রবাসী বাংলাদেশীরা ।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4651788আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 7এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET