৭ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার, ২২শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২২শে রজব, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • দেশজুড়ে
  • শেখ হাসিনার ঘর উপহার পেয়ে খুশি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারগুলো

শেখ হাসিনার ঘর উপহার পেয়ে খুশি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারগুলো

আবদুল আজিজ, হিলি,দিনাজপুর করেসপন্ডেন্ট।

আপডেট টাইম : জানুয়ারি ২১ ২০২১, ১৯:০৭ | 633 বার পঠিত

মুজিববর্ষে প্রানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার হিসেবে দিনাজপুরের হিলিতে পাকা বাড়িঘর পাচ্ছেন ১৪৫টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার। প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে এমন উপহার পেয়ে খুশি হয়েছেন এসব পরিবারের মানুষেরা। আগামী ২৩ শে জানুয়ারি সারাদেশে একযোগে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এসব বাড়ি হস্তান্তর করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

হাকিমপুর উপজেলার ১নং খট্রামাধবপাড়া ইউনিয়নের কয়েকজন উপকারভোগী জানান, আমরা ভুমিহীন মানুষ, পরের জায়গায় ভাঙাচোরা বাড়ি-ঘর করে আছি, তাতে করে কোনোরকমে ছেলে-মেয়ে নিয়ে সেখানে কষ্ট করে থাকি। এখন এই যে সুন্দর বাড়ি ঘর দিচ্ছে এটা পেলে আমাদের খুব উপকার হবে। প্রধানমন্ত্রী আমাদেরকে যে সুযোগ সুবিধা দিছে এর চেয়ে আমাদের আর কী চাওয়া পাওয়ার আছে। সরকার আমাদেরকে যেটা করে দিচ্ছে এটাতে আমরা খুব সন্তুষ্ট।

হাকিমপুর উপজেলার ২নং বোয়ালদাড় ইউনিয়নের কয়েকজন উপকারভোগী জানান, অনেকেই মানুষের জায়গায় কুঁড়েঘর করে থাকে। তারা কোন দিন স্বপ্নেও কল্পনা করতে পারিনি যে ইটের ঘর পাবে এমনকি সরকার তাদের ইটের ঘর দিবে। অনেক বয়স্করা বলেন যে, শেষ বয়সে ইটের ঘরে থাকতে পারবে। ইটের ঘর পেয়ে তারা এখন অনেক খুশি। এজন্য শেখ মুজিবুরের বেটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ জানিয়েছেন তারা।

হাকিমপুর উপজেলার ৩নং আলীহাট ইউনিয়নের কয়েকজন উপকারভোগী জানান, আমাদের বাড়ি-ঘর এমনকি নিজের বলতে কিচ্ছু নেই, খুব কষ্ট করে মানুষের জায়গায় থাকি। বৃষ্টি এলে খুউব কষ্ট হয় ছেলে-মেয়েকে নিয়ে। তারপরেও কষ্ট করে সেখানে আমরা থাকতাম। সরকার থেকে আমাদেরকে পাকা বাড়ি দিছে এতে করে এবার আমাদের কষ্ট ঘুচবে।

হাকিমপুর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা কাওসার আলী জানান, মুজিববর্ষ উপলক্ষে সরকার প্রতিটি ঘর তৈরিতে ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা করে বরাদ্দ দিয়েছে। এই টাকা ব্যয়ে দুটি করে বেডরুম, ১টি করে টয়লেট, ১টি করে স্টোররুম কাম রান্নাঘর সম্বলিত একটি বাড়ি নির্মাণ করা হচ্ছে। এখানে ঘর তৈরিতে সব এক নম্বর ইট ব্যবহার করা হচ্ছে, এখানে দুই নম্বরি কোনও কিছু দেওয়ার বা করার কোনও সুযোগ নেই। সেজন্য আমাদের যে উপকারভোগী আছে তারা যেখানেই থাকেন তাদেরকে বলে দেওয়া আছে ও ক্ষমতা দেওয়া আছে এখানে যদি কোনোরকম খারাপ কিছু পায় সেগুলো দিয়ে যেন কাজ করতে দেওয়া না হয়।

হাকিমপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ নূর-এ আলম জানান, প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন মুজিববর্ষে একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না। সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে আমরা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছি। আমাদের হাকিমপুর উপজেলায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ন-২ প্রকল্পের অধীনে ১৪৫টি ঘর ভূমিহীন ও গৃহহীন মানুষের জন্য বরাদ্দ হয়েছে ঘর তৈরির কাজ ইতোমধ্যেই প্রায় শেষ হয়েছে। খুব দ্রুততম সময়ের মধ্যে আমরা গৃহহীন মানুষদের তাদের স্বপ্ন পূরণে তাদের একটি ঘর উপহার দিতে পারবো।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4407115আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 16এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET