২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১২ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

শিরোনামঃ-

সততার কারনে প্রমোশন হলো সহকারী কমিশনার ভূমি চৌধুরী রওশন ইসলামের

প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

আপডেট টাইম : অক্টোবর ২৬ ২০১৬, ২৩:২১ | 644 বার পঠিত

শামীম খান ঝিনাইদহ ব্যুরো চিফ : সবখানেই শোন যায় ভূমি অফিস মানেই দূর্নীতির আকড়া। কর্মকর্তা কর্মচারীরা হয়ে যায় রাতারাতি আঙ্গুল ফুলে কলা গাছ। এই কথাটি বাস্তবে প্রমান করে দিলেন, না এটা সত্য নয়। জনগনের টাকায় আমাদের বেতন হয়। যে কৃষক মাথার ঘাম পায়ে ফেলে চাষবাস করে এবং সরকারের খাজনা পরিশোধ করে তাদের সাথে কখনও খারাপ ব্যবহার ও অবৈধ টাকা পয়সা নেয়া যাবে না। সবখানেই থাকবে স্বচ্ছতা। আর এই স্বচ্ছতা এনে দিলেন সহকারী কমিশনার ভূমি মহেশপুর চৌধুরী রওশন ইসলাম। তিনি গত ২২ নভেম্বর’২০১৫ সালে সহকারী কমিশনার হিসেবে মহেশপুরে যোগদান করেন। সে সময় ভূমি অফিসের নাস্তানাবুদ অবস্থা। একটি গুরুত্বপুর্ন অফিস হওয়া সত্বেও ছিল না কোন বাউন্ডারি ওয়াল, ছিল না গেট। ছিল একটি জরাজীর্ন ভবন। তিনি একটি বাউন্ডারি ওয়াল ভবনটি স্বংস্করণ, রং ও ফুলের বাগান করেন। বাইরে থেকে আসা কোন প্রজা যাতে কষ্ট না পায় তার জন্য একটি ঘর তৈরী করেন এবং অফিসের জন্য বিভিন্ন আলমারি, সিসি ক্যামেরা, ওয়াইফাই জোন, জন সাধারনের তথ্য সহায়তা কেন্দ্র, অভিযোগ কেন্দ্র ও সাধারন মানুষ তার সাথে সরাসরি যোগাযোগ করার ব্যবস্থা করেন। এছাড়াও অফিসিয়াল প্যাড ছাপিয়ে তাতে মহেশপুরের বিভিন্ন গুরুত্বপুর্ন ব্যাক্তিদের মোবাইল নাম্বার ও অফিসিয়াল কর্মচারীদের আইডি কার্ড দেওয়া হয়েছে। সাধারন মানুষ এখন আর ভূমি অফিসকে দুর্নীতি যুক্ত অফিস বলে না।
ফতেপুর গ্রামের এক কৃষক প্রজা আব্দুল হাই জানান, আমি তার সাথে একদিন সাক্ষাত করেছি তাতে তিনি সৎ লোক, ভালো লোক বলে মনে হল।

সার্ভেয়ার মনিরুল আহসান এর সাথে কথা হলে জানান, এই কর্মকর্তা যোগদানের পর হতে উপজেলা ভূমি অফিস দুর্নীতি মুক্ত।

সন্তোষ কুমার নামে একজন জানায়, স্যার একজন সৎলোক, তিনি সাংবাদিক কে বলেন এই অফিস কি এর আগে এমন দেখেছেন ? মহেশপুর পৌর ভূমি কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম জানান, ২৪ বছর চাকুরী জীবনে এমন সৎ, কর্মঠ, মেধাবী, সদালাপী, সুন্দর অফিসার দেখিনাই। সাধারন লোকজনকে তার দ্বারা কখনও হয়রানি হতে দেখিনী। আমাদের পূর্বের যে বদনাম সেটা থেকে এই অফিসারের পরিচালনায় সম্পুর্ন বেরিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছে। তিনি নিজে বাজার করে খান। যদি না যেতে পারে তাহলে কেউ বাজার করে আনলে সাথে সাথে তার দামটি দিয়ে দেন। সততাই যার পুজি তাকে কেউ আটকাতে পারেনা। সরকারের গোয়েন্দা সংস্থার জরিপে তিনি উৎকৃষ্ট মানের সৎ অফিসার হওয়ার কারনে রিপোর্টের ভিত্তিতে গত ২৯ সেপ্টেম্বর তাকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গ্রেড নং- ৬ এ উন্নিত করা হয়েছে।
সহকারী কমিশনার ভূমি চৌধুরী রওশন ইসলাম জানান, এসবই হয়েছে মূলত উপরের কর্মকর্তা ডিসি, এডিসি রেভিনিউ ও বিভাগীয় কমিশনার স্যারের যথাযথ নির্দেশনা এবং সে মোতাবেক কাজ কর্ম পরিচালনা করে আমি এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছি।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4722869আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 5এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET