৩১শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার, ১৬ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনামঃ-

‘সরকারের আচরণের ওপর নির্ভর করছে কর্মসূচি’

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : আগস্ট ২৬ ২০১৬, ০৩:২১ | 641 বার পঠিত

28856_fkrনয়া আলো ডেস্ক- রামপালে কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্র নিয়ে বিএনপি কোনো কর্মসূচি দেবে কি-না, তা সরকারের আচরণের ওপর নির্ভর করছে বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, আমাদের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া রামপালে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প নিয়ে যে দাবি জানিয়েছেন সরকার সেটা কিভাবে রেসপন্স করে এটা পর্যবেক্ষণ করছে বিএনপি। আমরা দেখছি, সরকার এটাকে কিভাবে নেয়। এছাড়া, রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের বিরুদ্ধে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠন যে আন্দোলন করছে তাদের প্রতিও বিএনপির সমর্থন রয়েছে। আমরা মাঠে নেমে বিরোধিতা করবো কিনা- সেটা নির্ভর করবে সরকারের আচরণের ওপরে। কারণ আমরা একটা দাবি জানিয়েছি, আমরা অপেক্ষা করবো, সেই দাবির প্রতি তারা (সরকার) কিভাবে রেসপন্স করছে। মুক্তিযোদ্ধা দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। উল্লেখ্য, রামপালে ওই বিদ্যুৎকেন্দ্র বাতিলের দাবিতে ২৪শে নভেম্বর থেকে ‘চল চল ঢাকা চল’ এবং ২৬শে নভেম্বর ঢাকায় ‘মহাসমাবেশের’ কর্মসূচি দিয়েছে তেল-গ্যাস রক্ষা কমিটি। বিএনপি মহাসচিব বলেন, সুন্দরবনের পাশে রামপালে কয়লাভিত্তিক যে তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের কাজ চলছে, সেটি নিঃসন্দেহে দেশ, জাতি ও পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর। বেঁচে থাকার জন্য সুন্দরবন রক্ষা করা আমাদের দায়িত্ব। বিদ্যুৎও আমাদের দরকার। তবে সুন্দরবন ধ্বংস করে নয়। আমাদের বিকল্প পথ আছে। দেশের অন্য জায়গা আছে, সেখানে বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করা যেতে পারে। বিএনপি নতুন ইস্যু তৈরি করতে রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রের বিরুদ্ধে কথা বলছে- সরকারি দলের নেতাদের এমন বক্তব্যের জবাবে মির্জা আলমগীর বলেন, খালেদা জিয়া জাতীয় স্বার্থে জনগণের পক্ষে আন্দোলন করছে এবং এখনও গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের জন্য লড়াই করে যাচ্ছেন। বিএনপি নিজস্ব আদর্শ ও মূল্যবোধ নিয়ে রাজনীতি করে। কে কী বললো, সেটা মুখ্য বিষয় না। তবে আওয়ামী লীগ নেতারা সব সময় বিএনপির বিরুদ্ধে স্বভাবসুলভ বক্তব্য দেয়। আওয়ামী লীগের কাজই হচ্ছে ইস্যু ডাইভার্ট করা। আওয়ামী লীগ যত ইস্যু তৈরি করেছে, তাতে বিএনপির নতুন ইস্যু তৈরির প্রয়োজন নেই। মির্জা আলমগীর বলেন, মুক্তিযোদ্ধারা আজকে স্বাধীনতা যুদ্ধের ঘোষক শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের মাজার জিয়ারত করে শপথ নিয়েছেন, তারা বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের যে চেতনা গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে প্রতিষ্ঠিত করা, মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠিত করা, মানুষের সামাজিক মূল্যবোধ রক্ষা করা- তা করবে। এর আগে মুক্তিযোদ্ধা দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতার সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর পর বিশেষ মোনাজাত করেন মির্জা আলমগীর। এ সময় বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহীম বীরপ্রতীক, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, ফজলুর রহমান, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, মুক্তিযোদ্ধাবিষয়ক সম্পাদক জয়নাল আবেদীন, মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি ইশতিয়াক আজিজ উলফাত, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাদেক আহমেদ খান সহ সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4657896আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 6এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET