২রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ১৮ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২২শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • বিশেষ প্রতিবেদন
  • হুমকীর মুখে সমিতির ৩০ লাখ টাকার তহবিল কেশবপুরে জামায়াতে ইসলামীর ছত্রছায়ায় চলছে মাদ্রাসা শিক্ষক ও কর্মচারী কল্যাণ সমিতির মেয়াদ উত্তীর্ণ কমিটির কার্যক্রম ॥ নতুন কমিটি গঠনের দাবি

হুমকীর মুখে সমিতির ৩০ লাখ টাকার তহবিল কেশবপুরে জামায়াতে ইসলামীর ছত্রছায়ায় চলছে মাদ্রাসা শিক্ষক ও কর্মচারী কল্যাণ সমিতির মেয়াদ উত্তীর্ণ কমিটির কার্যক্রম ॥ নতুন কমিটি গঠনের দাবি

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : সেপ্টেম্বর ২৩ ২০১৬, ১৭:৪৩ | 653 বার পঠিত

এস আর সাঈদ, কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি-
কেশবপুরে জামায়াতে ইসলামীর ছত্রছায়ায় চলছে উপজেলা মাদ্রাসা শিক্ষক ও কর্মচারী কল্যাণ সমিতির মেয়াদ উত্তীর্ণ কমিটির কার্যক্রম। যার ফলে হুমকীর মুখে রয়েছে শিক্ষক ও কর্মচারীদের ৩০ লাখ টাকা। অবিলম্বে নতুন কমিটি গঠনের দাবি জানিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট লিখিত আবেদন করেছেন ৪২টি মাদ্রাসার প্রধানগন।
কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট লিখিত আবেদনে জানাগেছে, ১৯৯৪ সালে কেশবপুর মাদ্রাসা শিক্ষক ও কর্মচারী কল্যাণ সমিতি প্রতিষ্ঠিত হয়। তারই ধারাবাহিকতায় ২০১০ সালের জুন মাসে সর্বশেষ ৫ বছর মেয়াদী সমিতির সর্বশেষ কার্যনির্বাহী কমিটি গঠিত হয়। যার মেয়াদ ২০১৫ সালের ২২ জুন শেষ হয়। বর্তমানে উক্ত কমিটি বিধি বিধান লঙ্ঘন করে কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও সম্পূর্ণ অবৈধ পন্থায় সমিতির কার্যক্রম পরিচালনা করে যাচ্ছে। যার কারণে শিক্ষক ও কর্মচারীদের আমানত সমিতির ৩০ লাখ টাকার তহবিল হুমকীর মুখে রয়েছে। সমিতির নির্বাচিত সভাপতি কেশবপুর আলিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ বোরহান উদ্দীন অবসরে গেলে কেশবপুরের আমীরে জামায়াত বরণডালি দাখিল মাদ্রাসার সহ-সুপার আব্দুস সামাদ সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। কিন্তু মাঝে মাঝে জামায়াত নেতা মাওঃ আব্দুস শুকুর সভাপতির দায়িত্বে রয়েছেন বলে একটি সূত্র জানিয়েছেন।
এব্যাপারে কেশবপুর উপজেলা জমিয়াতুল মুদারেসীনের সাধারণ সম্পাদক মাওঃ কফিল উদ্দীন জানান, যদিও উক্ত সমিতি সম্পূর্ণ অরাজনৈতিক সংগঠন হওয়া সত্ত্বেও জামায়াতে ইসলামীর ছত্রছায়ায় পরিচালিত হচ্ছে। কেশবপুরে জামায়াতে ইসলামীর কোন কার্যালয় না থাকায় তারা সমিতির কার্যালয়ে তাদের কার্যক্রম পরিচালিত করছে। সমিতিটি মূলত আব্দুল খালেক, রুহুল আমিন ও আরিফ বিল্লাহ নামে ত্রি-রতেœর হাতে জিম্মি হয়ে পড়েছে। তারা বিভিন্ন বই প্রকাশনী থেকে শিক্ষক সমিতির নাম ভাঙ্গিয়ে লাখ লাখ টাকা আতœসাৎ করে চেলেছেন। মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতির নামে ক্রয়কৃত জমি বাজার মূল্যের অধিক দেখানো হয়েছে এবং সাধারণ শিক্ষকদের কোন প্রকার অবগত করা হয়নি। তিনি আরো জানান, সাধারণ শিক্ষক ও কর্মচারীদের কষ্টার্জিত ৩০ লাখ টাকার তহবিল আতœসাত করার জন্য তারা স্বেচ্ছাচারিভাবে নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে মেয়াদ উর্ত্তীর্ণ কমিটির নামে অবৈধভাবে সমিতির কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।
এব্যাপারে উপজেলার ৪২ টি মাদ্রাসার প্রধানগণ শিক্ষক ও কর্মচারীদের আমানত ৩০ লাখ টাকা রক্ষার্থে অবৈধ কমিটি বিলুপ্ত করে বিধি মোতাবেক নতুন কমিটি গঠন ও অবৈধভাবে আকড়ে থাকা সদস্যদের বিরুদ্ধে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারে নিকট লিখিত আবেদন করেছেন।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4662623আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 6এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET