১৫ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৮ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • দেশজুড়ে
  • বিপাকে খেঁটে খাওয়া মানুষ ফুলবাড়ীতে তীব্র শৈত প্রবাহ, শীতে কাহিল জন-জীবন




বিপাকে খেঁটে খাওয়া মানুষ ফুলবাড়ীতে তীব্র শৈত প্রবাহ, শীতে কাহিল জন-জীবন

মোঃ আবু শহীদ, ফুলবাড়ী,দিনাজপুর করেসপন্ডেন্ট।

আপডেট টাইম : জানুয়ারি ০৩ ২০২২, ১৯:৫৪ | 703 বার পঠিত | প্রিন্ট / ইপেপার প্রিন্ট / ইপেপার

সীমান্ত ঘেষা উত্তরের জেলা দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে তীব্র শীত আর ঘন কুয়াশা ও অব্যাহত শৈত্য প্রবাহে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। আর এতে সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছেন খেটে খাওয়া মানুষ। ঘন কুয়াশার কারণে দুর্ঘটনা এড়াতে দিনের বেলাতেও হেডলাইট জ্বালিয়ে চলাচল করতে দেখা গেছে ছোটবড় যানবাহন গুলোকে। সকাল গড়িয়ে মধ্য দুপুরেও দেখা মিলছে সূর্যের। ঘন কুয়াশার কারনে যানবাহন চলাচলেও ব্যাঘাত ঘটছে।
গতকাল সোমবার ভোর থেকেই তীব্র শীত আর ঘন কুয়াশার সাথে সাথে শৈত্য প্রবাহের কারণে পৌর শহর ছিল প্রায় জনশূন্য। হাটবাজারে ক্রেতাদের উপস্থিতি ছিল নগণ্য। কাজের সন্ধানে শ্রমজীবীরা শহরের নিমতলা মোড়ে সকাল থেকে অবস্থান করেও কাজ না পেয়ে বেলা বাড়ার পর নিরাশ হয়ে বাড়ী ফিরতে বাধ্য হয়েছেন। কোথাও কোথাও দিনের বেলাতেও আগুন জ্বালিয়ে শীত নিবারণ করছেন সাধারণ মানুষ। পাশাপাশি অসহায় ছিন্নমূল মানুষদের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে ফুলবাড়ী পৌর শহরের উর্ব্বশী সিনেমা হলের সামনের কমদামী গরম কাপড়ের দোকান গুলোতে। এদিকে সকাল সোয়া ১১ টা পর্যন্ত অফিসগুলোতে কর্মকর্তাদের উপস্থিতি থাকলেও সেবা গ্রহীতাদের উপস্থিতি ছিল কম।
উপজেলার শিবনগর ইউনিয়নের ডাংগাপাড়া গ্রামের ক্ষেতমজুর উর্মি মুর্মু ও তিলাইপাড়া গ্রামের সাবিনা বাস্কে বলেন, তীব্র শীত,ঘন কুয়াশা আর শৈত্য প্রবাহের কারণে ক্ষেতে বেশীক্ষণ অবস্থান করতে না পারার কারণে কাজও করতে পারছেন না তারা। এ কারণে গত দুইদিন থেকে বেকার অবস্থায় বাড়ীতে বসে আছেন।
পৌর শহরের রিকশা চালক আব্দুর রশিদ বলেন, বর্তমানে প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাহিরে বের হচ্ছেননা কেউ,তাই শহর জনশূন্য হয়ে পড়ায় তারা যাত্রী পাচ্ছেন না। ফলে সকাল ৭টা থেকে সকাল সাড়ে ১০টা পর্যন্ত স্থানীয় ননীগোপাল মোড়ে অবস্থান করেও একজন যাত্রীও পাননি তিনি। পত্রিকা বিক্রেতা ইদ্রিস আলী ও আরজু আরা বলেন, তীব্র শীতের সাথে শৈত্য প্রবাহের কারণে পাঠকদের বাড়ী বাড়ী গিয়ে পত্রিকা দেওয়া কঠিন হয়ে পড়ছে।
উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. শফিউল ইসলাম বলেন, এ পর্যন্ত উপজেলায় শীতবস্ত্র হিসেবে প্রথম দফায় ৩ হাজার ৪৪০ টি কম্বল এবং দ্বিতীয় দফায় নগদ ৬ লাখ ৫৪ হাজার বরাদ্দ পাওয়া গেছে। দ্রুত এগুলো বিতরণের ব্যবস্থা করা হবে।
দিনাজপুর আবহাওয়া অধিদপ্তরের ইনচার্জ মোঃ তোফাজ্জল হোসেন বলেন, গতকাল সোমবার দিনাজপুরের তাপমাত্রা ছিল ১০.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা দেশের দ্বিতীয় সর্বনি¤œ তাপমাত্রা। বাতাসের গতিবেগ ৮/১০ কি.মি প্রতিঘণ্টায়। দেশের সর্বনি¤œ তাপমাত্রা বিরাজ করছে নওগাঁর বদলগাছিতে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোঃ রিয়াজ উদ্দিন বলেন,শীতের বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। তেমন গুরুতর হলে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

Please follow and like us:

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৬০১৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET