২১শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার, ৮ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৮ই রমজান, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনামঃ-

অ্যান্ড্রয়েড ফোনের বিশেষ কিছু সিক্রেট সেটিংস

খোরশেদ আলম চৌধুরী, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট।

আপডেট টাইম : মার্চ ০৭ ২০২১, ০২:১১ | 656 বার পঠিত

মুহাম্মদ ছাইফুল্যাহ ,পরশুরাম, ফেনী-
আমরা সবাই বর্তমানে কম বেশি অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন ব্যবহার করি এবং অনেক সেটিংস সম্বন্ধেও জানি। কিন্তু এমনও কিছু আজব ও চমৎকার সেটিংস রয়েছে যেগুলো খুবই উপকারী কিন্তু সবাই জানেন না। আজ এমনই কিছু সেটিংস সম্বন্ধেই আপনাদের জানাবো।
আমরা বর্তমান সময়ে অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন ব্যবহার করিনা এমন মানুষ খুব কম। কিন্তু এমন কিছু মানুষ আছেন, কিন্তু হাতে গোণা, যারা বাটন, উইন্ডোজ বা আইফোন ব্যবহার করে থাকেন। অর্থাৎ অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারী সংখ্যা নিঃসন্দেহে অনেক বেশি।
সবাই ফোন ব্যবহার করেন ঠিকই তবে আমাদের ফোনের বিভিন্ন সেটিংস রয়েছে, কিছু সাধারণ এবং কিছু হয়তো অসাধারণ, যেগুলো সম্বন্ধে হয়তো সবাই জানেন না। আবার এমন হতেও পারে যে কিছু সেটিংস সম্বন্ধে হয়তো আপনারা জানেন।
আজকে আমরা আলোচনা করবো কিছু সিক্রেট অ্যান্ড্রয়েড সেটিংস নিয়ে, যেগুলো সম্বন্ধে আপনারা হয়তো কেউই জানেন না বা জানলেও তা হাতে গোণা দুয়েক জন হয়তো। এগুলো দেখিয়ে আপনি আপনার আপনজনদের চমকে দিতে পারেন বা আপনার বন্ধুদের সাথে প্র‍্যাংক করতেও পারেন। তবে মূলত এই সেটিংসগুলো অনেক বেশি দরকারী এবং বেশিরভাগ সেটিংসগুলো আপনাদের হয়তো ভবিষ্যতে দরকার হতে পারে।
আপনারা নিশ্চয় কথাগুলো শুনে অনেক বেশি আগ্রহী হয়ে উঠেছেন সেটিংসগুলো সম্বন্ধে জানার জন্য। তাহলে চলুন আর দেরি না করে আমরা মূল আলোচনা শুরু করি।
অ্যান্ড্রয়েড ফোনের বিশেষ কিছু সিক্রেট সেটিংস :
১. ফোনের ডেভেলপার অপশন চালু করা
আপনারা সবাই হয়তো ডেভেলপার অপশন এর কথা শুনে থাকবেন। তবে বিশেষ কিছু ফোন ছাড়া এই অপশন সবার ফোনের সেটিংসে পাওয়া যায়না। হয়তো আপনার ফোনের সেটিংস ঘাটলেও আপনি এই সেটিংসটি খুজে পাবেন না।
ডেভেলপার অপশন থেকে আপনি বিভিন্ন ভাবে আপনার ফোনের সফটওয়্যার উন্নয়ন এবং ফোনের অনেক কিছু কাস্টমাইজ করতে পারবেন। এছাড়া এখান থেকে আপনি আপনার ফোন স্লো মনে হলে ফাস্ট ও করে নিতে পারবেন। তো এর জন্য আপনাকে আপনার ফোনের “About Phone” অপশনে যেতে হবে।
এখান থেকে আপনার ফোনের Build Number খুজে বের করুন। এরপর এখানে পরপর ৭ বার ক্লিক করুন। এরপর আপনি ডেভেলপার অপশন চালু হয়ে গিয়েছে, এমন একটি মেসেজ স্ক্রিনে দেখতে পাবেন।
২. ফোন এর গতি বাড়িয়ে নিন সহজেই
আমাদের ফোন অনেক সময়ই স্লো কাজ করে এবং আমরা এটা নিয়ে সবাই বিরক্ত বোধ করি। অনেকে হয়তো অনেকরকম এন্টি ভাইরাস সফটওয়্যারও ব্যবহার করে থাকেন ফোন ফাস্ট করার জন্য। কিন্তু এই সফটওয়্যার গুলোও হয়তো আপনাদের উটকো ঝামেলা মনে হতে পারে।
তাই আমি আপনাদের জানাবো কিভাবে কোন এপ্লিকেশন ব্যবহার না করেই নিজের ফোন থেকে ফোন স্পীড বাড়িয়ে নেবেন। তো এর জন্য আপনাদের যেতে হবে ডেভেলপার অপশনে, এরপর এখান থেকে নিচের ছবির তিনটি অপশন আপনাদের ০ করে দিতে হবে আর নিচের দিকে এপ্লিকেশন সেটিংসে ব্যাকগ্রাউন্ড রানিং বন্ধ করে দিতে হবে। এরপর একবার রিস্টার্ট করে দেখুন ফোন ফাস্ট হয়ে যাবে।
৩. দ্রুত ডাটা শেষ হয়ে যাওয়ার সমাধান করুন
আপনাদের অনেকেরই হয়তো ফোনের ডাটা অতি দ্রুত শেষ হয়ে যায়। অর্থাৎ ৫০-১০০ এম্বি থাকলে বা রিচার্জ করলে সেটা খুব দ্রুত ফুরিয়ে যায়। এক্ষেত্রে সমাধান করার জন্য হয়তো আপনারা অনেক কৌশল ব্যবহার করেছেন কিন্তু কাজ হয়নি। কিন্তু আমি আপনাদের এমন একটি উপায় আজ দেখাবো যাতে আপনারা এই সমস্যাটির সমাধান করে ফেলতে পারবেন।
এর জন্য, প্রথমেই ফোনের সেটিংসে চলে যাবেন। এরপর “Data Usage” অপশনে গিয়ে থ্রি ডটে ক্লিক করে “Restrict Background Data” অপশন চালু করে দেবেন। এতে আপনার ফোনে কোনো এপ্লিকেশন চালু না থাকলে, সেখান থেকে কোনো প্রকার ডাটা আপনার ফোন থেকে খরচ হবেনা।
এছাড়া আপনি যদি চান যে আপনার ফোনের ইন্টারনেট শেষ হয়ে গেলে যেনো আপনি নোটিফিকেশন পান বা আপনার ব্যালান্স যেনো না কাটা হয়, তাহলে এই অপশন থেকেই, “Set Mobile Data” অপশনে ক্লিক করে নিজের পছন্দমতো অথবা ব্যালান্স অনুযায়ী লিমিট সেট করুন।
এতে আপনার ফোনের ইন্টারনেট ব্যবহারের লিমিট শেষ হলে আপনাকে নোটিফিকেশন পাঠানো হবে এবং সীমা অতিক্রম হলেই আপনার ফোনের ডাটা কানেকশন স্বয়ংক্রিয়ভাবে বন্ধ হয়ে যাবে। এভাবে আপনি আপনার ফোনের ইন্টারনেট সংক্রান্ত সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন।
৪. এক সীমে কথা বললেও অন্য সীমের কল আসার সেটিংস
আমরা সাধারণত বর্তমানে সবাই ফোনে দুইটি সিম কার্ড ব্যবহার করি। তবে আমরা যখন একটি সিমে কথা বলি, তখন অন্য সিমে কল আসে না বা বন্ধ দেখায়। এটা খুবই স্বাভাবিক কিন্তু এতে অনেক সময়ই আপনাদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হয়।
কিন্তু আমি আপনাদের এমন সেটিংস দেখাবো যাতে আপনাদের দুইটি সিমেই একই সময়ে কল আসবে এবং বন্ধ বা ব্যস্ত বলবে না। এর জন্য আপনাদের “Sim Card Management” অপশনে যেতে হবে। এরপর এখান থেকে আপনাদের “Dual Sim Always On” অপশনে ক্লিক করে ইনেবল করে দিতে হবে। এখানে ৩০ সেকেন্ডের মতো সময় লাগতে পারে।
যদি আপনারা সব মডেলের ফোনে সেটিংসটি খুজে না পান, তাহলে কল সেটিংস এর ভিতর থেকে কল ওয়েটিং সেবা চালু করে নিতে পারবেন। এতে আপনাদের ফোনের একটি সিমে কথা বলা সত্ত্বেও আপনাদের অন্য সিম কেউ কল করলে আপনাদের কাছে সেটা আসবে এবং চাইলে আপনারা বর্তমান কলটি কেটে সেই কলটিও রিসিভ করতে পারবেন।
সুপ্রিয় পাঠকগণ, এই ছিলো অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন এর কিছু গোপন ট্রিক্স এবং সেটিংস নিয়ে আমাদের আজকের আলোচনা।
Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4494794আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 1এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET