১৯শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ৬ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৬ই রমজান, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনামঃ-

প্রতিভার সন্ধানে লেখক বজলার রহমান রাজা

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা করেসপন্ডেন্ট।

আপডেট টাইম : ফেব্রুয়ারি ০৭ ২০২১, ১৯:০৯ | 662 বার পঠিত

লেখক বজলার রহমান রাজা গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার মহদীপুর ইউনিয়নে দূর্গাপুর গ্রামে ১৯৫৬ সালে জন্ম গ্রহন করেন। সরকারি চাকুরী থেকে অবসর নেয়ার পর লেখা নিয়ে চিন্তা শুরু করেন। শিক্ষা জীবনে সাহিত্যিক নিয়ে কথা বললেও চাকুরি জীবনেও মানুষের কথা ভাবতেন। তারই ধারাবাহিকতায় আজকের লেখক বজলার রহমান রাজা। শিক্ষার যেমন শেষ নেই তেমনি লেখাপড়ারও বয়স নেই। বজলার রহমান রাজা অবসর সময়ে ঘরে বসে প্রতিভার সন্ধানে কাজ করতেন। সমাজ সংস্কার, রাজনীতি এসব নিয়ে ভাবনার পিছনে, দেশ তথা জনসাধারণের কথা চিন্তা করে বই লেখা শুরু করেন।
জীবন সংগ্রাম উর্ধ্বে রেখে অতিসয় বিনয়ী লেখক বজলার রহমান রাজা। অবসরে সময়ে যার প্রায় তিন শতাধিক বই লেখা ও প্রকাশ পেয়েছে। রাজনীতি, সংস্কার, ধর্মীয়, ইতিহাস, কুসংস্কার ও উন্নয়ন নিয়ে লেখা বইগুলো প্রকাশিত হয়। জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত যেমন শেখার শেষ নেই। তেমনি লেখক বজলার রহমান রাজা কারও জন্য অপেক্ষাতেও বসে নেই। নিরঅলস প্রচেষ্টায় লিখেই চলছে অভিরাম। রাজনীতি, সমাজনীতি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য এসব নিয়ে ভাবনা অপরসীম।
সম্প্রতি সময়ে কথা হয় লেখক বজলার রহমান রাজার সাথে। দুঃখ কষ্টের মাঝেও সীমাবদ্ধতার মধ্যে লিখে চলেছেন। সচেতন ব্যক্তির কাছে তার জিজ্ঞাসা। লেখা বই গুলো তার রুমে তরে তরে সাজানো আছে। পহেলা ফেব্রুয়ারী তার বই গুলো দেখার জন্য তার বাসায় গেলে শতশত প্রকাশিত বই সাজানো গোছানো চোখে পরে। সেইসাথে বহু সম্মাননা, ক্রেস্ট, উপহার সামগ্রী দেখা যায়। লেখা বই গুলো প্রকাশও পেয়েছে। গত একুশে ফেব্রুয়ারী মহামারী করোন ভাইরাসের মধ্যে সংক্ষিপ্ত বই মেলায় স্থান পেয়েছে মহানায়কের কালজয়ী ভাষণ, অঙ্গিতা মহাকাব্য গ্রন্থ, আমার প্রিয় নেত্রী, ভাষার জন্য ভালোবাসা, পলাশী থেকে বাংলাদেশ সহ প্রায় ৭০টি বই তিনটি প্রকাশনী থেকে প্রকাশ হয়ে স্টলে বিক্রি হয়। এসব বইয়ের মধ্যে মহানায়কের কালজয়ী ভাষণে, মহাত্তাগান্ধী সম্মাননা, ইন্দ্রগান্ধী স্মৃতি পদক, লেনসন ম্যান্ডেলা স্মৃতি পদক, মাদারত্রেসা সম্মাননা পায়। এছাড়া লেখার অবদানের জন্য মানবাধীকার শান্তি পদক এবং বঙ্গবন্ধু সাংস্কুতিক গবেষনা কেন্দ্র থেকে শান্তি পদক প্রদান করা হয়। উল্লেখযোগ্য ভাবে বেগম রোকেয় পদকে ভূষিত হন। বই গুলোর মধ্যে দেখা যায়, বাংলার নয়ন মনি শেখ হাসিনা, পৃথীবির সপ্তআসার্য, বাংলার কিছু কৃতি সন্তান, বঙ্গবন্ধু শতবর্ষ, বঙ্গবন্ধু শতবর্ষ প্রর্তি, একুশ আমার গর্ব- একুশ আমার অহংকার, জীবনের আলো, নাজাদের পথ, জীবনের জন্য আল-কুরআন সহ বহু বই এই পর্যন্ত লেখতে সক্ষম হয়েছে। চলতি ২১শে বই মেলাই নতুন বইয়ের মধ্যে বঙ্গবন্ধুর শতবর্ষপূতি, বঙ্গবন্ধু শতবর্ষ স্থান পাবে বলে জানায়।
১৯৭৩ সালে এসএসসি, ১৯৭৫ সালে এইচএসসি পাশ করে উন্মক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের চার বৎসর মেয়াদী ¯œাতক ও কৃষি ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৭৭ সালে প্রথম চাকুরিতে যোগদান করে ২০১৮ সালে কৃষিসম্পসারণ অফিসার হিসেবে পদোন্নতি পেয়ে অবসর গ্রহণ করেন। সংসার জীবনে দুই মেয়ে ও স্ত্রী নিয়ে পলাশবাড়ী পৌরশহরে নুনিয়াগাড়ী গ্রামে বসবাস করছেন। চাকুরি জীবনেও তার চিন্তা চেতনার মধ্যে বই লেখার প্রবনতা পরিলক্ষিক্ষ হয়। কৃষি অফিসে চাকুরির সময়ে অধিদপ্তরে মাসিক কৃষি কথায় লেখার অভ্যস্ত থাকায় আজ চলে এসেছে এইখানে। স্মৃতির পাতায় বজলার রহমান রাজা প্রতিভার সন্ধানে নিরঅলস কাজ করে যাচ্ছে। বেঁচে থাকায় স্মৃতি নিয়ে লেখা অব্যাহত রাখবে বলে সংকল্পবদ্ধ।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4492620আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 2এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET