২৭শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার, ১২ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ই জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • দেশজুড়ে
  • রাজশাহীতে যৌবনহারা পদ্মানদির বালুচরে নানাবিধ ফসলে কৃষি বিপ্লব

রাজশাহীতে যৌবনহারা পদ্মানদির বালুচরে নানাবিধ ফসলে কৃষি বিপ্লব

প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

আপডেট টাইম : মার্চ ১১ ২০২১, ২০:০৭ | 707 বার পঠিত

রাজশাহীর শুষ্ক মৌসুমে পদ্মার বালুচরে কৃষকরা সোনার ফসল ফলিয়ে কৃষি বিপ্লব ঘটিয়েছেন। পদ্মার বুকে নানাবিধ ফসলের চাষাবাদে বদলে দিয়েছে তারা প্রকৃতির রূপ। এক সময় পদ্মা ছিল দুঃখের কারণ এখন আর সেই পদ্মার বুকে বিভিন্ন ফসল ফলিয়ে অভাব দূর করছেন এখানকার কৃষকরা। ধূ-ধূ বালুচরে ধান,গম,পিয়াজ, রসুন, বাঁধাকপি, ফুলকপি, লাউ, টমেটো, সিম, আলু,মটরসুটিসহ বিভিন্ন ফসলের চাষাবাদে ভরে উঠেছে চর। অক্লান্ত পরিশ্রমে অসম্ভবকে সম্ভব করে বাঁচার স্বপ্ন দেখছেন নদীভাঙা শত শত পরিবার গুলো। নদী বর্তমানে সমতল ভূমিতে পরিণত হয়েছে। স্বাধীনতার পর থেকে আজ পর্যন্ত নদী খনন এবং ড্রেজিং না করায় দিনের পর দিন পলি মাটিতে ভরে উঠেছে। বর্ষ মৌসুমে নদী ভাঙনে বাপ-দাদার বসতভিটা ছেড়ে ভিন্ন জেলায় চলে যাওয়া পরিবার গুলো আবারো ফিরে এসে বালুচরে শুরু করেছে নানাবিধ ফসলের চাষাবাদ। নদীর বুকে জেগে ওঠা পরিত্যক্ত বালুচরে উন্নয়নের স্বপ্নে ফসল বুনে ঘরে তুলছেন খেটে খাওয়া সাধারন মানুষেরা। এইতো কয়েক বছর আগে যেখানে ছিল বালুচর, সর্বনাশা পদ্মার গ্রাসে ঘর-বাড়ি হারিয়ে নিঃস্ব হয়েছে অনেক পরিবার। এমনকী অভাব অনটন ছিল তাদের নিত্যদিনের সাথী। এখন তা বদলে গেছে তাদের জীবন যাত্রা। পদ্মার বালুচরে বন্যায় পলিমাটি জমে উঠায় এসব চর এখন উর্বর আবাদি জমিতে পরিণত হয়েছে। বালুচরে এখন শোভা পাচ্ছে সবুজের সমারোহ। পদ্মায় এখন পানি থাকেনা। নদীর তলদেশ শুকিয়ে জেগে ওঠে বালুচর। সেই বালুর চরে এলাকার কৃষান-কৃষানীরা জট বেধে বিভিন্ন ধরনের ফসল ফলাচ্ছে। এবং তাতে তারা লাভবান হচ্ছে। এদিকে,জেলার পবা,গোদাগাড়ী,বাঘা ও চারঘাট উপজেলার বিভিন্ন চরে এবছর প্রায় দুই হাজার হেক্টর জমিতে ফলবে বোর ধান। এছাড়া আরো কয়েক হাজার হেক্টর জমিতে ফলবে গম,মসুর,মিষ্টি আলু,ভুট্টা,পেঁয়াজ ধান, মিষ্টি কুমড়াসহ হরেক রকম ফসল। কৃষকরা জাননা,বাঘা উপজেলার গড়গড়ি,পাকুড়িয়া,মণিগ্রাম ইউনিয়নের চরের পরিবারগুলো বিশাল বালুচরকে কাজে লাগিয়ে অভাব দূর করছেন। ওই সকল পরিবারগুলো বিভিন্ন ফসল চাষ করে অসহায় দূর করছেন। নারীরা তাদের স্বামী-সন্তান নিয়ে শারীরিক পরিশ্রম করে বিভিন্ন ফসল ফলাচ্ছেন। সেই ফসল বিক্রি করে সাফল্য দেখচ্ছেন। এছাড়া চলতি মোৗসুমের সুরুতে রবি ফসল চাষ করে চাষীদের মুখে এখন হাসির ঝলক ভরে উঠেছে। চরের চাষীরা জানান,বালুচরে কোন ফসল ফলানো যাবে এটা স্বপ্নেও ভাবিনি। এখন বালুচরে ফসল রোপণ করে অভাবের সংসারে সচ্ছলতা এনেছি। তারা আরো জানান, প্রতি বছরই বাড়ছে চাষের পরিধি। সেই সঙ্গে বাড়ছে ফলন। লাভের টাকা হাতে পেয়ে স্বাবলম্বী হচ্ছেন কৃষকরা। অপদিকে, বুধবার (১০ মার্চ) সকালে জেলার পবা উজেলার হরিপুরের চর মাঝাড়দিয়াড়ে গ্রামের ৩০ জন কৃষকের মাঝে উন্নত জাতের বাদামের বীজ বিতরণ করা হয়েছে। এসময় প্রত্যেক কৃষক করে ২০ কেজি করে বাদামের বীজ প্রধান করা হয়। এবিষয়ে জেলা কৃষি অফিস বলছেন, গত কয়েক বছর থেকে বালুচরে বিভিন ফসল চাষ হচ্ছে। আগের চেয়ে এবার ফলন আরো বেশি হবে। তবে সরকারি সহায়তা পেলে ওইসব উদ্যোমী মানুষের হাতেই ভাগ্য বদলে যাবে বলে চরের মানুষ আশা প্রকাশ করছেন।#

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4651701আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 5এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com নিউজ রুম।

Email-Cvnayaalo@gmail.com সিভি জমা।

 

 

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET